1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০১:২৫ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

স্মার্ট বাংলাদেশ নির্মাণে সকল জয়িতাই আমাদের অনুপ্রেরণার উৎস —-মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহা-পরিচালক কেয়া খান

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ১১৭ বার পঠিত

সালেহ আহমদ :স্মার্ট বাংলাদেশ নির্মাণে সকল জয়িতাই আমাদের অনুপ্রেরণার উৎস। বাংলাদেশের অসংখ্য নারীর অন্তরে অনুপ্রেরণার বীজ বুনে দেবেন এ জয়িতারা। জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ শীর্ষক কার্যক্রম সহ সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের ফলে নারী উন্নয়ন আজ সমাজের বিভিন্নক্ষেত্রে দৃশ্যমান।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারী) সিলেটে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর ও বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ের আয়োজনে বিভাগের শ্রেষ্ঠ জয়িতা সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরে মহা-পরিচালক (গ্রেড-১) কেয়া খান এসব কথা বলেন।

বিভাগীয় কমিশনার (অতিরিক্ত সচিব) আবু আহমদ ছিদ্দীকী এনডিসি’র সভাপতিত্বে সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক ও রাজস্ব) দেবজিৎ সিংহ।

বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ কমিশনার মোঃ জাকির হোসেন খান পিপিএম, অতিরিক্ত ডিআইজি (অ্যাডমিন অ্যান্ড ফিন্যান্স) সৈয়দ হারুন অর রশীদ, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের পরিচালক (যুগ্ম সচিব) জাকিয়া আফরোজ, জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ কর্মসূচির পরিচালক (যুগ্ম সচিব) সালেহা বিনতে সিরাজ, জেলা প্রশাসক শেখ রাসেল হাসান, সাবেক সংসদ সদস্য সৈয়দা জেবুন্নেছা হক। অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর সিলেটের উপ-পরিচালক শাহিনা আক্তার।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নারীবান্ধব সরকার উন্নয়নে নারীদের সম্পৃক্ত করতে বহুমুখী উদ্যোগ নিয়েছে উল্লেখ করে কেয়া খান বলেন, সমাজে প্রতিকূলতা অতিক্রম করে যে নারী তাঁর কাজের মাধ্যমে উজ্জীবিত তাঁদের সম্মান ও স্বীকৃতি প্রদানের জন্য জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ কার্যক্রমটি বাস্তবায়িত হচ্ছে। এছাড়াও সরকার নারীর স্বাস্থ্য, শিক্ষা, কর্মসংস্থান সহ সুরক্ষা প্রদানে ব্যাপক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এজন্য নারীর ক্ষমতায়ন ও উন্নয়নের ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য সাফল্য লাভের জন্য বাংলাদেশ অর্জন করেছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি।

সিলেট বিভাগের পাঁচ ক্যাটাগরিতে অর্থনৈতিকভাবে সাফল্য অর্জনকারী নারী আছমা কামালী শান্তা, শিক্ষা ও চাকুরী ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী নারী অধ্যাপক ডা. শামসুন নাহার বেগম, সফল জননী নারী কমলী রবিদাশ, সমাজ উন্নয়নের জন্য স্বপ্না রানী দেব বর্মা, নির্যাতনের বিভীষিকা মুছে ফেলে নতুন উদ্যমে জীবন শুরু করা নারী নাজমা আক্তার শ্রেষ্ঠ জয়িতাগণ নির্বাচিত হয়েছেন।

 

 

 

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..