1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০২:১৬ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

বিশ্বকাপের দৌড়ে ছিলেন বিজয়, যে কারণে টিকে গেলেন লিটন

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৫ মে, ২০২৪
  • ২৪ বার পঠিত

ডেস্ক রিপোর্ট ::জিম্বাবুয়ে সিরিজ শেষ হলো। পুরস্কার বিতরণীর আনুষ্ঠানিকতা শেষ হতে সাকিব আল হাসান সেন্টার উইকেটে লম্বা সময় ধরে ব্যাটিং করেন। সাকিবের অনুশীলন শেষ হতেই হাজির লিটন দাস। সঙ্গী জাতীয় দলের ব্যাটিং কোচ ডেবিড হেম্প। একাদশে জায়গা হারিয়ে নিজেকে প্রস্তুত করার চেষ্টায় চলতে থাকে এই উইকেটরক্ষক ব্যাটারের অনুশীলন।

জিম্বাবুয়ে সিরিজে প্রথম তিন ম্যাচের একাদশে থাকলেও বাকি দুই ম্যাচে ছিলেন বিশ্রামে। বিশ্রাম বলা হলেও মূলত ফর্ম হারিয়ে একাদশে নিজের জায়গা খুইয়েছেন লিটন। আগে থেকে অনুমিত ছিল, ফর্মের ঘাটতি থাকলেও লিটন বিশ্বকাপ দলে থাকবেন। শেষ পর্যন্ত তাই হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৪ মে) লিটন দাসকে রেখে ১৫ সদস্যের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দল ঘোষণা করে নির্বাচক প্যানেল। ফর্মে ঘাটতির কারণে লিটনের পরিবর্তে বিবেচনায় এসেছিলেন আরেক উইকেটরক্ষক ব্যাটার এনামুল হক বিজয়ও। কিন্তু দৌড়ে শেষ পর্যন্ত টিকে গেলেন লিটন। সেই ব্যাখ্যা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন প্রধান নির্বাচক গাজী আশরাফ হোসেন লিপু।

‘লিটনকে রিপ্লেস করতে হলে একজন উইকেটরক্ষকও নিতে হবে। শুধু ওপেনার বিবেচনা করলে হয়ত ভিন্ন নাম আসত। এনামুল হক বিজয়ের নাম আমরা আলোচনা করেছি। ফর্মের ঘাটতির পরও লিটনের উপর আস্থা রেখেছি।’

লিটন ছাড়া ১৫ সদস্যের দলে উইকেটরক্ষক ছিলেন একমাত্র জাকের আলী অনিক। বিকল্প উইকেটরক্ষক ব্যাটার নিতেই হতো আরেকজন। এই জায়গাতে লিটনের সঙ্গে বিজয়ের নাম আসে। দুজনে আবার ওপেনার। সব মিলিয়ে লিটনের দক্ষতা বিবেচনায় নিয়ে তার উপর আস্থা রাখে টিম ম্যানেজমেন্ট। তাকে ফর্মে ফেরানোর জন্য কোচিং স্টাফ কাজ করছেন বলেও জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচক।

‘শুধু একজন ওপেনার না, তার উইকেটকিপিং এবিলিটিও বিবেচনায় এসেছে। তাকে নিয়ে কিন্তু কাজ করা হচ্ছে। যে দুই ম্যাচ খেলেনি তখন আস্থার জায়গা পুনরুদ্ধারের চেষ্টা কোচিং স্টাফ করেছে। এটা তো বলা যায় না কতটা পুনরুদ্ধার করা যাচ্ছে। তবে বল সিলেকশন, শট সিলেকশনে লক্ষ্য করছি সেখানে আরও উন্নতির জন্য কোচিং স্টাফ চেষ্টা করছে।’

চলতি বছর লিটন ৬টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেন। একবার মাত্র ত্রিশের বেশি (৩৬) রান করতে পেরেছেন। বাকি ম্যাচগুলোতে লিটনের রান ০, ৭, ১, ২৩ ও ১২। সবশেষ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ব্যর্থ হওয়ার পর এক শট টানা তিনবার খেলতে গিয়ে আউট হন লিটন।

বিশ্বকাপের আগে আছে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। টিম ম্যানেজমেন্ট তাকে এই সিরিজে খেলাতে পারে, হারানো ফর্ম ফেরানোর জন্য। তবে লিটন কি আস্থার প্রতিদান দিতে পারবেন?

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..