1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
  3. admin@mkantho.com : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১১:০৩ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
* বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শনে সিলেটে প্রধানমন্ত্রী   *  বন্যা নিয়ে দুশ্চিন্তার কিছু নেই, সরকার সব ব্যবস্থা নিয়েছে : প্রধানমন্ত্রী

লকডাউন উপেক্ষিত বড়লেখায় স্কুলে শিক্ষার্থী জড়ো করে স্কুলব্যাগ বিতরণ !

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৬ জুলাই, ২০২১
  • ১২৫ বার পঠিত

বড়লেখা প্রতিনিধি : বড়লেখা উপজেলার ভাগাডহর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাসিদ কামাল স্বাস্থ্যবিধি লঙ্গন করে মঙ্গলবার দুপুরে তার স্কুলে শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবক জড়ো করে স্কুলব্যাগ বিতরণ করলেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ময়নুল হক।

জরুরী প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বেরুতেই যখন কঠোর নিষেধাজ্ঞা। করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকারী নির্দেশনা বাস্তবায়নে প্রশাসন যখন মাঠে কঠোর অবস্থানে। ঠিক তখনই প্রশাসনের চোখকে ফাঁকি দিয়ে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকির মধ্যে প্রধান শিক্ষকের এধরণের গণসমাবেশ আয়োজনে বিভিন্ন মহলে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। মাঠ পর্যায়ে প্রশাসনের চলমান সর্বাত্মক লকডাউন কার্যকরকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা গেছে, সরকারের চলমান কঠোর লকডাউন অমান্য করে মঙ্গলবার দুপুরে ভাগাডহর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিশু শিক্ষার্থীদের মধ্যে স্কুলব্যাগ বিতরণের আয়োজন করেন প্রধান শিক্ষক নিসাদ কামাল। এতে শতাধিক শিক্ষার্থী ও অভিভাবক জড়ো হন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় নিজ বাহাদুরপুর ইউপি চেয়ারম্যান ময়নুল হক। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ইউপি মেম্বার রশিদ আহমদ সুনাম, সংরক্ষিত আসনের মহিলা মেম্বার রূপবান বেগম, শিক্ষক বিনয় কুমার দাস, সাবেক শিক্ষিকা ঝর্ণা রানী পুরকায়স্থ, ব্যবসায়ী অমিও দেব নাথ প্রমূখ।

এব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান ময়নুল হক জানান, এলজিএসপি প্রকল্প থেকে এ স্কুলের শিক্ষার্থীদের কিছু স্কুলব্যাগ বরাদ্দ ছিল। শিক্ষার্থী কিংবা অভিভাবক জড়ো করা হয়নি। প্রতীকি হিসেবে এক শিক্ষার্থীকে এনে বিতরণের পর প্রধান শিক্ষককে বাড়ি বাড়ি গিয়ে স্কুলব্যাগ পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে তিনি চলে যান। ব্যাগ বিতরণের খবর পেয়ে পরে হয়তো কিছু শিক্ষার্থী জড়ো হয়।

প্রধান শিক্ষক নাসিদ কামাল স্কুলে অনুষ্ঠান আয়োজনের কথা অস্বীকার করে বলেন, স্কুলব্যাগ বিতরণ করা হয়নি। পরে শিক্ষার্থীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে পৌছে দিবেন। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. রফিজ মিয়া জানান, লকডাউনে স্কুলে শিক্ষার্থী জড়ো না করার ব্যাপারে প্রতিটি স্কুল প্রধানকে কঠোর নির্দেশনা দেওয়া রয়েছে। স্কুলে শিক্ষার্থী ও অভিভাবক জড়ো করে প্রধান শিক্ষক সরকারী নির্দেশনাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়েছেন, নিঃসন্দেহে অপরাধ করেছেন। এরজন্য তাকে শোকজ করা হবে।

ইউএনও খন্দকার মুদাচ্ছির বিন আলী জানান, সর্বাত্মক লকডাউন বাস্তবায়নে উপজেলা প্রশাসন মাঠে কাজ করছে। সবধরণের সভা, সমাবেশ, অনুষ্ঠান সম্পুর্ণ নিষিদ্ধ। শিক্ষার্থীদের স্কুলে জড়ো করে স্কুলব্যাগ দেওয়ায় চরমভাবে স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘিত হয়েছে। এব্যাপারে খোঁজ নিয়ে তিনি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..