1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
  3. admin@mkantho.com : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:০০ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
বাস ভাড়া বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি,  এবার লঞ্চভাড়াও বাড়লো, ধর্মঘট প্রত্যাহার, গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মিশনে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ব্যাটিংয়ে পাকিস্তান, আফগান ও ভারতের বিদায়ঘণ্টা বাজিয়ে সেমিতে নিউজিল্যান্ড, সড়কে নেমেছে গণপরিবহন, কোন বাসে কত বাড়লো ভাড়া, সিএনজিচালিত গাড়িতে বাড়তি ভাড়া নয়

মসজিদের নামকরণ নিয়ে দ্বন্দ্বের জের বড়লেখায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৬, ১২ জনের অবস্থা আশংকাজনক

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৫ জুলাই, ২০২১
  • ৬১ বার পঠিত

বড়লেখা প্রতিনিধি : বড়লেখায় মসজিদের নামকরণ বিরোধের জের ধরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ উভয়পক্ষের ১৬ ব্যক্তি আহত হয়েছেন। শনিবার আছরের নামাজের পর সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে উপজেলার সুজানগর ইউনিয়নের সুজানগর গ্রামে। থানা পুলিশ ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছেন। আহতদের ১২ জনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাদেরকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেছে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগ।

আহতরা হলেন- সুজানগর গ্রামের বাসিন্দা সুকরাম বিন আলা বক্স, বকুল বক্স, সজ্জাদ হোসেন, আবিদ আহমদ, এমাদ হোসেন, আলিম উদ্দিন, মেহেরুন বেগম, শিপা বেগম, মহসিন আলী, আজিজুর রহমান, জাবের আহমদ ও আজাদ আহমদ।

এলকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, সুজানগর গ্রামের মসজিদের নামকরণ নিয়ে গ্রামবাসীর দু’টি পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে দ্ব›দ্ব চলছিল। একপক্ষ চাচ্ছিল গ্রামের জামে মসজিদের নাম হবে ‘সুজানগর জামে মসজিদ’ অপর পক্ষ চাচ্ছিল বক্সবাড়ি জামে মসজিদ। এর জেরধরে শনিবার আছরের নামাজের পর দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এতে উভয় পক্ষের ১৫ ব্যক্তি আহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ নিয়ে থানার ওসি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নছিব আলী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন।

সুজানগর ইউপি চেয়ারম্যান নছিব আলী জানান, সুজানগর গ্রামের দু’টি পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের খবর পেয়ে তিনি ও থানার ওসি ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেন। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের কয়েকজন আহত হয়েছেন। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

বড়লেখা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডা. অমিত আচার্য্য জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় ৪ জন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। ১২ জনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় সন্ধ্যার পর তাদেরকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

থানার ওসি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার জানান, খবর পেয়েই পুলিশ নিয়ে তিনি ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। সংঘর্ষের ঘটনায় শনিবার রাত পৌনে ১০টা পর্যন্ত কোনো পক্ষই থানায় মামলা করেনি। মামলা করলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নিবেন।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..