1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০৬:২৪ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

কাবুল ছেড়েছে যুক্তরাজ্যের শেষ ফ্লাইট

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৯ আগস্ট, ২০২১
  • ২৪২ বার পঠিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: ডাউনিং স্ট্রিট নিশ্চিত করছে যে, কাবুল থেকে সব ব্রিটিশ সৈন্য, কূটনীতিবিদ ও কর্মীদের সরিয়ে নেয়া হয়েছে। রয়্যাল এয়ারফোর্সের সবশেষ বিমানটির প্রস্থানের মধ্যে দিয়ে আফগানিস্তান যুদ্ধে ব্রিটেনের কুড়ি বছরের সংশ্লিষ্টতার অবসান হলো।

শনিবার (২৮ আগস্ট) ব্রিটেনের সামরিক বাহিনীর প্রধান জেনারেল স্যার নিক কার্টার বলেন, আমরা আমাদের উদ্ধার অভিযানের শেষ পর্যায়ে পৌঁছাচ্ছি। আজকের (শনিবারের) মধ্যেই এটি শেষ হবে। তবে কাবুল থেকে এখনো কিছু ফ্লাইট যুক্তরাজ্যের উদ্দেশ্যে ছাড়ছে, কিন্তু এগুলোর সংখ্যা খুবই কম।

তিনি বলেন, সবাইকে যে শেষ পর্যন্ত উদ্ধার করা যায়নি, সেটা খুবই হৃদয়বিদারক। আফগানিস্তান থেকে ব্রিটেনে আসার উপযুক্ত বহু আফগানকে সেখানে রেখে আসতে হচ্ছে। গত ১৪ অগাস্ট হতে কাবুল থেকে পনের হাজারেরও বেশি মানুষ সরিয়ে এনেছে যুক্তরাজ্য।

কাবুল থেকে ইতালির সর্বশেষ উদ্ধার ফ্লাইটও শনিবার রোমে পৌঁছেছে। এর আগে জার্মানি, ফ্রান্স, কানাডা এবং অস্ট্রেলিয়াও তাদের উদ্ধার অভিযান শেষ করার কথা ঘোষণা করে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র তাদের নাগরিকদের আবারও সতর্ক করে দিয়েছে, তারা যেন কাবুল বিমানবন্দর এড়িয়ে চলে। তবে সেখানে তারা শেষ মূহূর্ত পর্যন্ত বেসামরিক নাগরিকদের উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত রাখবে বলে ঘোষণা দিয়েছে।

তালেবানরা এ মাসে কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার পর সেখান থেকে গণহারে উদ্ধার অভিযান শুরু করে বিভিন্ন দেশ। উদ্ধার অভিযান যখন পুরোদমে চলছিল, তখন সেখানে প্রায় এক হাজার ব্রিটিশ সৈন্য ছিল। তবে এর বেশি সংখ্যক সৈন্য আফগানিস্তান ত্যাগ করেছে।

এদিকে তালেবান দাবি করছে, তারা কাবুল বিমানবন্দরের কিছু অংশের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। তবে যুক্তরাষ্ট্র এই দাবি অস্বীকার করছে।

কাবুল বিমানবন্দরে বৃহস্পতিবারের হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেছিল আইএস-কে (ইসলামিক স্টেট অব খোরাসান প্রভিন্স)। মার্কিন বাহিনী আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলে একটি ড্রোন হামলা চালিয়ে ইসলামিক স্টেট খোরাসান গ্রুপের এক নেতাকে হত্যা করেছে বলে জানিয়েছে।

মার্কিন বাহিনী দাবি করছে, গত বৃহস্পতিবার কাবুল বিমানবন্দরে হামলার পেছনে এই ব্যক্তি অন্যতম পরিকল্পনাকারী ছিল তাদের বিশ্বাস।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..