1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

দুই সন্তানের জননীকে ‘ধর্ষণ’

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৬৩৩ বার পঠিত

চুনারুঘাট প্রতিনিধি:  হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে রাতের আধারে ঘরের বেড়ার টিন খোলে দুই সন্তানের জননীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার দিবাগত (১৪ সেপ্টেম্বর) রাত ৩টার দিকে ওই নারীকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

হাসপাতালে ভর্তি নির্যাতিত নারী জানান, তাদের বাড়ি চুনারুঘাট উপজেলার চালিতার আব্দা গ্রামে। তার ১৫ বছর ও আড়াই বছরের দুটি ছেলে সন্তান রয়েছে।

প্রতিরাতের ন্যায় তার স্বামী পার্শ্ববর্তী একটি বিলে মাছ ধরতে যান। এ সময় তিনি ছোট ছেলেকে নিয়ে ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন। বড় ছেলে অন্য একটি ঘরে তার দাদার কাছে ঘুমে ছিল। রাত ২টার দিকে, প্রতিবেশি দুই যুবকসহ চারজন ঘরের পেছন দিকের বেড়ার টিন খোলে ভেতরে প্রবেশ করে। এ সময় দুই যুবক তাকে ধর্ষণ। কাকতালিয়ভাবে তার স্বামী চলে আসায় দূর্বৃত্বরা তার স্বামীকে আঘাত করে পালিয়ে যায়। নির্যাতিত নারীর স্বামী জানান, মাছ ধরা শেষে রাত দুইটার দিকে তিনি বাড়ি ফিরে আসেন। এ সময় ঘরের দরজা ভেতর দিক থেকে বন্ধ ছিল। কিন্তু ঘরের ভেতর থেকে দস্তাধস্তির শব্দ শুনে ডাকাডাকি করেন। এক পর্যায়ে ঘরের পেছন দিক দিয়ে ঘরের ভেতরে প্রবেশ করে নির্যাতনের দৃশ্য দেখতে পান। এ সময় দূর্বৃত্বরা তাকে আঘাত করে পালিয়ে যায়।

তিনি বলেন, ‘আমি দুইজনকে চিনতে পেরেছি। তারা আমাদের পাশের বাড়ির। বাকি দুইজনের মুখ কাপড় দিয়ে বাঁধা থাকার কারণে চেনা যায়নি। ‘৬/৭ মাস আগেও একবার চার যুবকের একজন আমার স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ বিষয়টি নিয়ে ওই যুবকের আমাদের বিরোধ চলে আসছিল। এ ব্যাপারে আমি মেম্বার-চেয়ারম্যানসহ গ্রামের ময়মুরব্বির কাছে বিচারও চেয়েছি। কিন্তু সবাই আমাকে বিচারের আশ্বাস দিয়েও বিচার করেননি। স্ত্রীর চিকিৎসা ও ডাক্তারি পরিক্ষার পর তিনি মামলা দায়ের করবেন বলেও জানান। এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক মিঠুন রায় জানান, ধর্ষণের অভিযোগ এনে এক নারী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। তার চিকিৎসা চলছে। পরীক্ষা-নীরিক্ষার পর ধর্ষণ হয়েছেন কি-না জানা যাবে।

শানখলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ফজলুর রহমান তরফদার জানান, ‘এর আগেও একবার এই নারীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় এক যুবক। তার স্বামী আমার কাছে বিচার দিয়েছিলেন। আমি সাবেক চেয়ারম্যান সাহেবকে বিষয়টি সমাধানের জন্য বলেছিলাম। কিন্তু আর সমাধান করেননি। তবে শুনেছি ওই যুবক এই ঘটনার সাথেও জড়িত। তবে বর্তমানে ঢাকায় থাকায় কিছু বলা সম্ভব হচ্ছে না। চুনারুঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলী আশরাফ বলেন, ‘এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোন অভিযোগ পাইনি। তবে সাংবাদিকদের মাধ্যমে বিষয়টি সম্পর্কে জানার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এসেছি। যদি কোন অভিযোগ পাই তবে অবশ্যই ব্যবস্থা নেব।’

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..