1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
  3. admin@mkantho.com : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০২:১৮ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
* বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শনে সিলেটে প্রধানমন্ত্রী   *  বন্যা নিয়ে দুশ্চিন্তার কিছু নেই, সরকার সব ব্যবস্থা নিয়েছে : প্রধানমন্ত্রী

ভারতে ডেল্টার চেয়েও বিপজ্জনক নতুন ধরন শনাক্ত

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২১
  • ৭৫ বার পঠিত

 অনলাইন ডেস্ক: ভারতে করোনাভাইরাসের অতিসংক্রামক ধরন ডেল্টার চেয়েও অতিসংক্রামক নতুন একটি ধরন শনাক্ত হয়েছে। এওয়াই.৪.২ নামে করোনার নতুন এই ধরনটি আসল ডেল্টা ধরনের তুলনায় ১০ গুণ বেশি সংক্রামক বলে জানিয়েছে দেশটির সিএসআইআর ল্যাবরেটরির একজন জ্যেষ্ঠ বিজ্ঞানী। টাইমস অব ইন্ডিয়া এক প্রতিবেদনে বলেছে, অতিসংক্রামক ধরন ডেল্টা গোত্রের নতুন এওয়াই.৪.২ ধরনটি জিনোম সিকোয়েন্সিং করে অন্তত সাতজনের শরীরে শনাক্ত করেছে জাতীয় রোগ নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র (এনসিডিসি)। আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে দুইজন সেনা কর্মকর্তা রয়েছেন।

গত সেপ্টেম্বরে মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরে ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণের নেপথ্যে ডেল্টার এই নতুন ধরন প্রভাব ফেলেছিল। আগের মাস আগস্টের তুলনায় সেপ্টেম্বরে ৬৪ শতাংশ বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছিল। সেসময় ইন্দোরের আর্মি কলেজে প্রশিক্ষণরত ৪৪ জন সেনা কর্মকর্তা করোনা আক্রান্ত হন।

টাইমস অব ইন্ডিয়াকে ইন্দোরের প্রধান চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বি এস সাতিয়া জানান, গত সেপ্টেম্বরে আক্রান্ত ব্যক্তিদের নমুনা সংগ্রহ করে কর্তৃপক্ষ জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ের জন্য পাঠায়। এরপর আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে দুই সেনা কর্মকর্তা নতুন ওই ধরনে আক্রান্ত বলে পরীক্ষায় উঠে আসে। এনসিডিসি ১ অক্টোবরের মধ্যে সাতজনের এবং ১৬ অক্টোবর অন্যদের প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

ভারতের সিএসআইআর ল্যাবরেটরির একজন জ্যেষ্ঠ বিজ্ঞানী বলেছেন, এওয়াই.৪.২ নামে করোনার নতুন এই ধরনটি করোনাভাইরাসের অতিসংক্রামক ডেল্টা ধরনের তুলনায় ১০ গুণ বেশি সংক্রামক। তাই এই ধরনকে ডেল্টার চেয়েও বেশি বিপজ্জনক বলাটা অমূলক নয়।এদিকে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পরিসংখ্যানের ভিত্তিতে আনন্দবাজার জানিয়েছে, সোমবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশটির আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১৪ হাজার ৩০৬ জন। তাদের নিয়ে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৩ কোটি ৪১ লাখ ৮৯ হাজার ৭৭৪ জন।

একইসময়ে ভারতে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৪৪৩ জনের। এর মধ্যে দক্ষিণের রাজ্য কেরালায় সবচেয়ে বেশি ৩৬৩ জন মারা গেছেন। এছাড়া মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু এবং পশ্চিমবঙ্গে দৈনিক মৃত্যু যথাক্রমে ১৮, ১৫ এবং ১০। বাকি সব রাজ্যে তা এক অঙ্কের ঘরেই আবদ্ধ রয়েছে। সবমিলিয়ে ভারতে করোনাভাইরাস মোট প্রাণ কেড়েছে ৪ লাখ ৫৪ হাজার ৭১২ জনের। দেশটিতে এখন সক্রিয় করোনা রোগী ১ লাখ ৬৭ হাজার ৬৯৫ জন।

 

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..