1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
  3. admin@mkantho.com : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
ব্রেকিং নিউজ :
জাতীয় : কোস্টগার্ডের প্রয়োজনে যা দরকার তা করবে সরকার : প্রধানমন্ত্রী

এক ম্যাচ হাতে রেখেই পাকিস্তানের সিরিজ জয়

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২০ নভেম্বর, ২০২১
  • ২৪১ বার পঠিত

ক্রীড়া ডেস্ক : মিরপুরে টাইগার বাহিনীকে হারিয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই ২-০ ব্যবধানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতেছে পাকিস্তান। তিন ম্যাচের সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে শনিবার (২০ নভেম্বর) বাংলাদেশকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে বাবর আজম বাহিনী। এদিন ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ দেখিয়েছে চির দৈনতা। দুটি সহজ ক্যাচ মিস করেছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা।

প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশকে ৪ উইকেটে হারিয়েছিল পাকিস্তান। শনিবার দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের দেওয়া ১০৯ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে ২ উইকেট হারিয়ে ১১ বল হাতে রেখে লক্ষ্য অতিক্রম করেছে পাকিস্তান। সফরকারী দলের হয়ে ফখর জামান ৫৭ ও মোহাম্মদ রিজওয়ান ৩৯ রান করেন। বাংলাদেশের হয়ে একটি করে উইকেট পান মুস্তাফিজুর রহমান ও আমিনুল ইসলাম বিপ্লব।

এর আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১০৮ রানে শেষ হয় মাহমুদউল্লাহ বাহিনীর ইনিংস। টাইগারদের হারানো ৭ উইকেটের ছয়টিই ছিল ক্যাচ আউট। যার মধ্যে তিনটি তালুবন্দি করেছেন পাক উইকেটকিপার রিজওয়ান। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছিল, বাবর আজমদের ক্যাচ প্রাকটিচ করাচ্ছিলেন বাংলাদেশের ব্যাটাররা।

শাহিন শাহ আফ্রিদি দলে ফিরেই নিজের প্রথম ওভারেই সাফল্যের দেখা পান। ওভারের পঞ্চম বলে ফেরান আগের ম্যাচের ব্যর্থ সাইফ হাসানকে। এক বল খেলে কোনো রান তুলতে না পেরেই এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়েন সাইফ। যদিও জোরালো আবেদনের পরেও প্রথমে আউট দেননি আম্পায়ার। কিন্তু রিভিউ নিয়ে সাফল্য পায় পাকিস্তান।

দ্বিতীয় ওভারে ওয়াসিম জুনিয়রের বলে ফিরে যান ওপেনার নাঈম শেখ। ৮ বল খেলে মাত্র ২ রান করেন তিনি। শাহিন শাহ নিজের দ্বিতীয় ওভারে বল করতে এসে প্রথম বলে মাত্র এক রান দিয়েছিলেন। কিন্তু দ্বিতীয় বলেই ছক্কা হাঁকান আফিফ হোসেন। এরপরের বলে কোনো রান নেওয়ার চেষ্টাই করেননি আফিফ। ক্রিজেই বল ছিল। কিন্তু তারপরও অন্যায়ভাবে আফ্রিদি আফিফের পা বরাবর বল ছুড়ে মারেন। যা ক্ষুব্ধ করে বাংলাদেশের সমর্থকদের।

২১ বলে ২০ রান করে বিপর্যস্ত দলকে টেনে তুলছিলেন আফিফ। কিন্তু শাদাব খানের বল ঠিকঠাক খেলতে না পেরে রিজওয়ানের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে গেছেন। এরপর ফিরে যান দলীয় কাপ্তান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও। ১৫ বল খেলে মাত্র ১২ রান করে হারিস রউফের বলে রিজওয়ানের হাতে ক্যাচ দিয়েছেন তিনিও। পরপর দুটি ক্যাচ তুলে নেন পাক উইকেটকিপার।

এক প্রান্তের ব্যাটারদের আসা-যাওয়ার মিছিলে অন্য প্রান্ত আগলে রাখছিলেন নাজমুল হাসান শান্ত। তার ব্যাটে ভর করেই নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়েও রানের চাকা সচল ছিল টিম টাইগার্সদের। কিন্তু চল্লিশের ঘরে গিয়ে তিনিও কাটা পড়লেন। শাদাব খানের হাতে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে ৩৪ বলে ৪০ করে সাজঘরে ফিরেছেন এই ব্যাটার।

প্রথম ম্যাচে সোহান-মেহেদী জুটিতে শেষ দিকে মান রক্ষা হয় টিম টাইগার্সের। এ ম্যাচে তা হয়নি। ফলে ১০৮ রানেই থেমে যায় টাইগারদের ইনিংস।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ: ২০ ওভারে ১০৮/৭ (নাজমুল হোসেন শান্ত ৪০, আফিফ হোসেন ২০, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ১২; শাহিন আফ্রিদি ২/১৫, শাদাব খান ২/২২)।

পাকিস্তান: ১৮.১ ওভারে ১০৯/২ রান (ফখর জামান ৫৭*,মোহাম্মদ রিজওয়ান ৩৯, হায়দার আলী ৬*, বাবর আজম ১)।

ফল: পাকিস্তান ৮ উইকেটে জয়ী।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..