1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
  3. admin@mkantho.com : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
ব্রেকিং নিউজ :
জাতীয় : কোস্টগার্ডের প্রয়োজনে যা দরকার তা করবে সরকার : প্রধানমন্ত্রী

শীতে শরীর চাঙা করতে মশলা চায়ের আশ্চর্য উপকারিতা

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ২৪১ বার পঠিত

ফিচার ডেস্ক:বাড়িতে অতিথি আপ্যায়নে কিংবা অফিসের ব্যস্ততায় এবং সাধারণভাবে দিনের যে কোনো সময় চায়ের কাপে ঠোঁট ছোঁয়াতে ভালোবাসেন না এমন মানুষ খুব কমই আছেন। অনেকে তো এক কাপ চা পান না করে সকালটা শুরুই করতে পারেন না। কারণ এক কাপ চায়ের সঙ্গে দিনের শুরুটা যেমন সুন্দর হয়, তেমনি সারা দিনের কাজের মাঝে এক কাপ চা শরীরের সব ক্লান্তি দূর করে দেয়। মশলা চায়ের উপকারিতা অনেক। বিশেষ করে শীতকালে স্বাস্থ্যের অনেক উপকার করে। এই সময়ে মাথা এবং শরীরের অন্যান্য যন্ত্রণা দূর করতে দারুণ কার্যকরী মশলা চা।

মশলা চায়ে সাধারণত থাকে এলাচ, দারুচিনি ,লবঙ্গ, জাফরান, তেজপাতা ইত্যাদি সহ আরো ১০ রকমের মশলা যা ভেষজ গুণাবলী সমৃদ্ধ। এসব মশলায় রয়েছে ভিটামিন বি, ভিটামিন সি, পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, কেরোটিন ও জরুরি মিনারেল যা স্বাস্থ্যের জন্য বয়ে আনে বাড়তি সুফল। এই চায়ে ক্যাফেইন এর পরিমাণ খুব সামান্য । আয়ুর্বেদিক তত্ত্ব অনুযায়ী, মশলা চায়ে ব্যবহৃত উপাদান সমূহ শরীরকে সতেজ ও প্রাণবন্ত করে এবং মনকে রাখে প্রফুল্ল।

মশলা চায়ে ব্যবহার্য সকল মশলাই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা সম্পন্ন। শুধু গরম মশলার ব্যবহার যেন এক কাপ চা পানের উপকারিতা বাড়িয়ে দেয় বহুগুণ। চায়ে ভেষজ বা মশলা ব্যবহারের ফলে এরা পরিপাকে সাহায্য করে।এতে অল্প মাত্রায় ক্যাফেইন থাকে বলে সাধারণ দুধ চা অপেক্ষা এই চা কম ক্ষতিকর। মৌসুমি সর্দি ও কাশি প্রতিরোধেও এই চা অত্যন্ত চমৎকার কাজ দেয়। মশলা চায়ে একই সঙ্গে হরেক রকম মশলার উপস্থিতি হতে পারে আপনার নানাবিধ সমস্যার সমাধান। মশলা চা গরম বা ঠান্ডা অবস্থায় পান করা যেতে পারে। তবে গরম অবস্থায় পান করাই শ্রেয়।

বিশেষজ্ঞদের মতে, মশলা চা হৃদরোগের ঝুঁকি কমানোর জন্য খুবই কার্যকরী। এতে থাকা দারুচিনি হৃদপিণ্ড সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

শীতকালে অনেকেরই হাঁপানির সমস্যা দেখা দেয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, এতে থাকা স্বাস্থ্যকর উপাদান শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। অ্যালজাইমার্স বা স্মৃতিভ্রংশের সমস্যা দূর করতেও দারুণ সাহায্য করে মশলা চা। এতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস মস্তিষ্ক সচল রাখে। দুধ ছাড়া মশলা চা মধুমেহ রোগীদের জন্য খুবই উপকারী। পাশাপাশি মধুমেহ রোগীদের মধ্যে কিডনি এবং হৃদরোগের ঝুঁকিও বাড়ে। সেই সমস্যাও কম রাখে।

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, বিভিন্ন সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, মশলা চা-এ ব্যবহার করা উপাদান ক্যানসারের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করেছে দারুণভাবে। শীতকালে ঠান্ডা লাগা, কাশি, সর্দি এবং জ্বরের প্রকোপ দেখা দেয়। এগুলোকে প্রতিরোধ করতে মশলা চা খাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। মশলা চা-এ ব্যবহার হওয়া দারুচিনি এবং বেসিল পাতা শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।

হজমের সমস্যা দূর করে হজমশক্তি উন্নত করতে মশলা চায়ের জুড়ি মেলা ভার। যাদের অনিদ্রার সমস্যা রয়েছে, তাদের জন্য দারুণ কার্যকরী মশলা চা। নিয়মিত খেলে ঘুম সঠিক হয় বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

যেভাবে বানাবেন মশলা চা

 

উপকরণ

পানি: ২ কাপ

এলাচ: ২টি

দারুচিনি: ২ টি

লবঙ্গ: ৩/৪টি

জোয়ান: ১/৪ চা চামচ

চিনি: ২ চা চামচ

চা পাতা: ২ চা চামচ

দুধ: ২ কাপ

 

প্রণালি

পাত্রে পানি নিয়ে তাতে এলাচ, দারুচিনি , লবঙ্গ ও জোয়ান গুঁড়া দিয়ে ভালো করে ফুটিয়ে নিন । অতঃপর তাতে চা পাতা দিন। । অল্প আঁচে মিশ্রণটিকে ফুটান । যখন মিশ্রণটি ফুটতে শুরু করবে তখন তাতে চিনি দিন । পানি শুকিয়ে অর্ধেক হয়ে গেলে তাতে দুধ মেশান। এই অবস্থায় আরো ২ মিনিট ফুটান এবং নিমিয়ে ছাঁকনির সাহায্যে ছেঁকে নিন । চায়ের মিষ্টতা বাড়াতে চাইলে চিনির সাথে মধু মেশাতে পারেন ।

 

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..