1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৬:০৯ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

বসুন্ধরার জয়ে শেষ আটে পুলিশ এফসি

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৫৪০ বার পঠিত

অনলাইন ডেস্ক: কোয়ার্টার-ফাইনাল আগেই নিশ্চিত হওয়ায় চট্টগ্রাম আবাহনীর বিপক্ষে নিয়মিত একাদশের আট জনকে বাইরে রেখে দল সাজান বসুন্ধরা কিংস কোচ অস্কার ব্রুসেন। তাতে অবশ্য তাদের দাপুটে পারফরম্যান্সে তেমন কোনো কমতি আসেনি। দাপুটে ফুটবল খেলে বড় জয় নিয়েই স্বাধীনতা কাপের গ্রুপ পর্ব শেষ করল বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। আজ বুধবার (৮ ডিসেম্বর) কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে ‘ডি’ গ্রুপের ম্যাচে চট্টগ্রাম আবাহনীকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে বসুন্ধরা। ৯ পয়েন্ট নিয়ে সেরা আটে উঠেছে তারা।

বসুন্ধরার জয়ে কপাল খুলেছে দিনের অন্য ম্যাচে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর বিপক্ষে ১-১ ড্র করা পুলিশ এফসির। দুই ড্রয়ে ২ পয়েন্ট নিয়েই সেরা আটে উঠেছে তারা। তিন ম্যাচে পুলিশের মতো ২ করে পয়েন্ট বাংলাদেশ নৌবাহিনী ও চট্টগ্রাম আবাহনীরও। কিন্তু গোল পার্থক্যে পিছিয়ে থাকায় গ্রুপ পর্ব থেকে ছিটকে গেছে এই দুই দল। ম্যাচের ২২তম মিনিটে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রবসন দি সিলভা রবিনিয়োর জোরালো কোনাকুনি শটে এগিয়ে যায় কিংস। বলের লাইনে ঝাঁপিয়ে পড়লেও আটকাতে পারেননি আজাদ হোসেন।

তিন মিনিট পর সমতায় ফেরার সুবর্ণ সুযোগ নষ্ট হয় চট্টগ্রাম আবাহনীর। থ্যাঙ্কগড বলের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার আগে তা ক্লিয়ার করতে গিয়ে রুবেল মিয়ার পায়ে তুলে দেন কিংস গোলরক্ষক সুলতান। ফাঁকা পোস্ট পেয়েও বাইরে মেরে সুযোগ হেলায় হারান রুবেল। ৩৬তম মিনিটে ফ্রি কিকের আগ মুহূর্তে পজিশন নিতে গিয়ে এলিটা কিংসলেকে কনুই দিয়ে সজোরে আঘাত করে বসেন থ্যাঙ্কগড। দুই পক্ষের মধ্যে দেখা দেয় উত্তেজনা। রেফারি থ্যাঙ্কগডকে দেন হলুদ কার্ড। প্রথমার্ধে আর কোনো গোল হয়নি। দ্বিতীয়ার্ধেও ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ পেয়েছিল চট্টগ্রাম আবাহনী। কিন্তু ৫৩তম মিনিটে রুবেলের ক্রসে মাথা ছোঁয়াতে পারেননি থ্যাঙ্কগড। ৭২তম মিনিটে রবিনিয়োর দারুণ থ্রু পাস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে গোলরক্ষক বরাবর মেরে ব্যবধান দ্বিগুণের সুযোগ নষ্ট করেন ফরোয়ার্ড মাহবুবুর রহমান সুফিল।

শেষ ১০ মিনিটের দুই গোলে স্বপ্নভঙ্গ হয় আবাহনীর। ৮০তম মিনিটে বক্সের একটু ওপরে বল ধরে লাল কার্ড দেখেন স্তইয়ান ভ্রানিয়াসকে আটকাতে পোস্ট ছেড়ে আসা আজাদ। বসনিয়া-হার্জেগোভিনার এই ফরোয়ার্ডেরই ফ্রি কিক ফেরান বদলি গোলরক্ষক শেখ সাইফুল ইসলাম; কিন্তু বদলি নামা মোহাম্মদ ইব্রাহিমের ফিরতি শট আটকাতে পারেননি তিনি। ৮৮তম মিনিটে রবিনিয়োর পাস ধরে বক্সে ঢুকে গোলরক্ষককে কাটিয়ে কোনাকুনি শটে লক্ষ্যভেদ করেন বদলি ফরোয়ার্ড মতিন মিয়া। তাতে বন্দরনগরীর দলটি বিদায় ঘণ্টা বেজে যায়।

এ ম্যাচ দিয়ে শেষ হলো গ্রুপ পর্ব। নির্ধারিত হয়ে গেল কোয়ার্টার-ফাইনালের লাইনআপও। সেরা আটে আগামী শুক্রবার মুখোমুখি হবে আবাহনী-বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব-স্বাধীনতা ক্রীড়া সংঘ। রোববার লড়বে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র-বাংলাদেশ পুলিশ ও কিংস-শেখ জামাল।

 

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..