1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
  3. admin@mkantho.com : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ১০:৫৭ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
জাতীয় : গবেষণায় সময় দিতে চিকিৎসকদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান , স্বাস্থ্য: সংক্রমণ মোকাবিলায় আমাদের দায়িত্বশীল হতে হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মৌলভীবাজারে নির্দেশনাই মানতে দেখা যায়নি: বিধিনিষেধ শুধু কাগজেই!

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৯৯ বার পঠিত

বিশেষ প্রতিরেদক: করোনা সংক্রমণ রোধে গতকাল বৃহষ্পতিবার থেকে দেশে আবারও শুরু হয়েছে ১১ দফা বিধিনিষেধ। তবে বেশিরভাগ নির্দেশনাই মানতে দেখা যায়নি মৌলভীবাজারে। ছোট বড় হোটেল-রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ীরা বলছেন, টিকা সনদ তদারকি কে করবে তা নিয়ে ধোঁয়াশা থাকায় বাস্তবায়ন করা যাচ্ছে না নির্দেশনা। এদিকে, শনিবার থেকে গণপরিবহণে অর্ধেক আসনে যাত্রী পরিবহণ করা হবে। সে অনুসারে আগাম আজ ও টিকিট বিক্রি চলছে রেলওয়ের। করোনা সংক্রমণ রোধে মাস্ক পরার বাধ্যবাধকতা থাকলেও মৌলভীবাজার জেলা শহরে ও উপজেলা শহরের দোকান, শপিংমল ও বাজারসহ কোথাও তা কঠোরভাবে মানা হচ্ছে না।
মৌলভীবাজার শহরের পশ্চিমকাজার কাঁচাবাজার, চৌমুহনা, কোর্ট বাজার বাজারের বেশ কয়েকজন ব্যবাসয়ী বলেন, টিকা কার্ড বাসায় আছে সঙ্গে রাখিনি। যদি বলে সঙ্গে রাখতে সমস্যা কী, গলায় ঝুলিয়ে রাখব। এক ক্রেতা জানান, মাস্ক ব্যবহার করতে হবে জানি, মানিও। তবে নানা অজুহাত আর টালবাহানা শুনাচ্ছেন অনেকে। হোটেল-রেস্তোরাঁয় বাধ্যতামূলকভাবে সবাইকে মাস্ক পরাসহ, করোনা টিকা সনদ ছাড়া রেস্তোরাঁয় প্রবেশ নিষেধ হলেও তা বাস্তবায়ন করা যায়নি মৌলভীবাজারে ।
একাদিক হোটেল ব্যবসায়ী জানান, আমরা আসলে বিভ্রান্ত এ বিষয়ে। কীভাবে টিকা কার্ড দেখব? কাস্টমারের কাছে থাকবে কি-না। দেখা যাবে কাউকেই পাওয়া যাবে না। প্রায় লোকের কাছেই থাকবে না কার্ড। কাস্টমারদের আমরা বলছি টিকা কার্ড সঙ্গে রাখতে, মাস্ক পরতে। মানা না মানা তাদের ব্যাপার।
বাস টার্মিনালগুলোতে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করাসহ নানা প্রস্তুতির নির্দেশনা থাকলেও তা বাস্তবায়ন হয়নি আজও। বাসচালক ও হেলপারদের করোনা টিকার সনদপত্র রাখার নির্দেশনাও পালন হচ্ছে না। বাস সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সাথে অলাপকালে বলেন, তারাও আগামী শনিবার থেকে বিধিনিষেধ কার্যকর করবে।
একাদিক বাসচালক এর সাথে আলাপকালে তারা বলেন, একটা কেহ দুইটা টিকা দিয়েছি। কাগজ বাসায়। ভাড়া যদি না বাড়ে তেলের দাম তো বেশি। আমরা তো সেটা পোষাতে পারবো না। পরিবহনে অনেক বাসযাত্রী বলেন, অর্ধেক আসনে বসলেও পরিবহণ সংকট তো দেখা যাবে। এটা তো সব যাত্রীরা মানবে না। করোনা সংক্রমণ রোধে ১২ বছরের বেশি বয়সী শিক্ষার্থীদের টিকা সনদ ছাড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রবেশের অনুমতি না দেয়ার নির্দেশনাও রয়েছে সরকারের। অভিভাবকরা বলেন, ভ্যাক্সিনের ডোজ কমপ্লিট না হলে স্কুলে ঢোকা যাবে না। প্রত্যেকটা লোককেই এই নির্দেশনা মেনে চলা উচিত।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..