1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:২২ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

তুফান হয়ে আসছে কেজিএফ

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১২ এপ্রিল, ২০২২
  • ১৫৭ বার পঠিত

বিনোদন ডেস্ক :: ভারতীয় সিনেমায় এক অনন্য ইতিহাস গড়েছে ‘কেজিএফ চ্যাপ্টার ওয়ান’। এই কন্নড় সিনেমার বাজেট ছিল ৮০ কোটি টাকা। ২০০ কোটিরও বেশি ব্যবসা করে রেকর্ড গড়েছিল। ২১ ডিসেম্বর ২০১৮ সালে মুক্তি পাওয়া সিনেমাটি নিয়ে চর্চা চলছে এখনো। ভারতের কন্নড় সুপারস্টার ইয়াশ অভিনীত সিনেমাটির দ্বিতীয় খণ্ড ‘কেজিএফ: চ্যাপ্টার টু’ মুক্তি পাচ্ছে ১৪ এপ্রিল। বিশ্লেষকেরা মনে করছেন, ভারতীয় সিনেমার ইতিহাসে আরও এক রেকর্ড গড়তে যাচ্ছেন ইয়াশ। সেটার একটি আভাস পাওয়া গেছে অগ্রিম টিকিট বিক্রিতে। ১০০ কোটি বাজেটের এই সিনেমা মুক্তির প্রথম দিনেই ১০০ কোটি রুপি আয়ের জোর সম্ভাবনা রয়েছে।

‘কেজিএফ: চ্যাপ্টার টু’ সিনেমায় ইয়াশ ওরফে রকি ভাই মুখোমুখি হবেন খলনায়ক সঞ্জয় দত্ত ওরফে আধিরার। প্রশান্ত নীলের পরিচালনায় সঞ্জয় দত্ত ছাড়াও অভিনয় করেছেন রাভিনা ট্যান্ডন, প্রকাশ রাজ ও শ্রীনিধি শেঠি।

কেজিএফ শব্দের পুরো অর্থ কোলার গোল্ড ফিল্ড। বেঙ্গালুরু থেকে ১০০ কিমি দূরে কোলার অঞ্চল। আনুমানিক ১২১ বছর আগে এখানে খনি থেকে সোনা উত্তোলন করা হতো। সায়ানাইডের সাহায্যে উত্তোলিত সোনাকে প্রসেস করা হতো বলে সেখানে বড় বড় সায়ানাইডের পাহাড় দেখা যায়। এই পাহাড়ের ওপরই সেট তৈরি করে কেজিএফের শুটিং হয়েছে।

৮০০ জনের বেশি জুনিয়র আর্টিস্ট অভিনয় করেছেন এই সিনেমায়। সেট ডিজাইন থেকে শুরু করে অভিনেতাদের পোশাক এবং ব্যবহারসামগ্রী সবকিছুতেই সময়কাল বিবেচনায় প্রতিটি ডিটেলিংকে যথাযথ গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হয়েছে। সিনেমাটি তৈরি করতে সময় লেগেছে চার বছর। গুঞ্জন উঠেছে সাফল্যের কথা মাথায় রেখে এই সিনেমার চ্যাপ্টার থ্রি তৈরি হবে। কিন্তু পরিচালক প্রশান্ত নীল বলেছেন, চ্যাপ্টার টু দিয়েই শেষ হচ্ছে কেজিএফ।

কিছু তথ্য…

গড়ুরার চরিত্রের অভিনেতা রামাচন্দ্র রাজুর এটি প্রথম সিনেমা। দীর্ঘ ১২ বছর তিনি অভিনেতা ইয়াশের দেহরক্ষী ছিলেন। নায়িকা শ্রীনিধি শেঠিরও প্রথম সিনেমা এটি।
ইয়াশের আসল নাম নবীন চন্দ্র গৌড়া। তাঁর বাবা পেশায় একজন বাস ড্রাইভার এবং মা গৃহবধূ।

প্রথম সাউথ ইন্ডিয়ান সিনেমা হিসেবে গ্রিসে মুক্তি পেতে যাচ্ছে এই সিনেমা।
ভারতে সাড়ে পাঁচ হাজার সিনেমা হলে মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে কেজিএফ

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..