1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

প্রথম সেশনে ৫ উইকেট তুলে নিয়ে বিরতিতে গেল বাংলাদেশ

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২১
  • ২৪৩ বার পঠিত

ক্রীড়া ডেস্ক : আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে শ্রীলঙ্কার কোচ মিকি আর্থুর বলেছেন, এখনো ফল আনা সম্ভব পাল্লেকেলে টেস্টে। সেই মোতাবেক আজ, ম্যাচের পঞ্চম দিন শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলেছে শ্রীলঙ্কা। ফলে এক সেশনেই তারা ছাড়িয়ে গেছে বাংলাদেশের ৫৪১ রানের সংগ্রহ।

তবে বল হাতে বাংলাদেশও কম যায়নি। পুরো টেস্টে প্রথমবারের মতো কোনো সেশনে পাঁচটি উইকেট তুলে নিয়েছে বাংলাদেশের বোলাররা। ফলে ৮ উইকেট হারিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে গেছে স্বাগতিকরা। লাহিরু কুমারা ছিটকে যাওয়ায় শ্রীলঙ্কার হাতে রয়েছে আর মাত্র ১টি উইকেট।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত পঞ্চম দিনের প্রথম সেশন শেষে ১৭৯ ওভারে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৮ উইকেটে ৬৪৮ রান। তাদের লিড বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০৭ রান। ইতিবাচক ব্যাটিংয়ে আজ দিনের প্রথম সেশনে ৩০ ওভারে ১৩৬ রান নিয়েছে শ্রীলঙ্কা। বিপরীতে ৫টি উইকেটও হারিয়েছে তারা।

আলোকস্বল্পতার কারণে শনিবার ২২ ওভার কম খেলা হয়। তাই আজকের খেলা শুরু হয়েছে ১৫ মিনিট আগে। দিনের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিলেন দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান করুনারাতেœ ও ধনঞ্জয়। আগেরদিনের ৩ উইকেটে ৫১২ রানের সঙ্গে প্রথম তিন ওভারেই যোগ করে ফেলেন ১৮ রান।

তবে দিনের পঞ্চম ওভারে নিজের বোলিংয়ে বৈচিত্র আনেন তাসকিন। ফলে প্রথম তিন বল খেলতে সমস্যা হয় ধনঞ্জয়ার। চতুর্থ বলটি অফস্ট্যাম্পের বাইরে পেয়ে হাত খোলার চেষ্টা করলে সেটি তার ব্যাটের ভেতরের কানায় লেগে আঘাত হানে স্ট্যাম্পে। ফলে সমাপ্তি ঘটে ২৯১ বলে ১৬৬ রানের ইনিংসের।

এখানেই শেষ নয়, নিজের পরের ওভারে আরেক সেট ব্যাটসম্যান করুনারাতেœকেও ফেরান তাসকিন। তার ১৪১ প্রতি ঘণ্টায় করা বাউন্সারে মিড উইকেটে পুল খেলতে চেয়েছিলেন করুনারাতেœ। কিন্তু মিস টাইমিংয়ে ধরা পড়ে যান নাজমুল হোসেন শান্তর হাতে।

ফলে শেষ হয়ে যায় ৬৯৮ মিনিটের ম্যারাথন ইনিংস। তার ব্যাট থেকে এসেছে ক্যারিয়ার সেরা ২৪৪ রানের ইনিংস। ধনঞ্জয়ের বিদায়ে ভাঙে ৩৪৫ রানের চতুর্থ উইকেট জুটি। যা টেস্ট ক্রিকেটে যে কোনো উইকেটে ষষ্ঠ সর্বোচ্চ রানের জুটি। আর মাত্র ৮ রানের জন্য ক্যারিয়ারের ৫ হাজার রান পূরণ করা হয়নি করুনারাতেœর।

দুই সেট ব্যাটসম্যান ফিরে যাওয়ার পর পাথুম নিসাঙ্কাও বেশিদূর যেতে পারেননি। এবাদত হোসেনের বল কট বিহাইন্ড হওয়ার আগে ১২ রান করেন তিনি। পরে ভানিন্দু হাসারাঙ্গাকে নিয়ে মাত্র ৬ ওভারে ৩২ রান যোগ করেন নিরোশান ডিকভেলা। তবে রানআউটে কাঁটা পড়েন ডিকভেলা, করেন ৩১ রান।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..