1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ১১:৫৫ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

কুলাউড়ায় ঈদের আগে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরে উঠবেন ৯৭ গৃহহীন পরিবার

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২২
  • ৪৭১ বার পঠিত

কুলাউড়া প্রতিনিধি :: মুজিববর্ষ উপলক্ষে আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের বরাদ্দের আওতায় ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে তৃতীয় পর্যায়ে জমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রম আগামী ২৬ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করবেন। এ কার্যক্রমের আওতায় ওইদিন দেশব্যাপী প্রায় ৩২ হাজার ৯০৪ টি পরিবারকে জমি ও ঘর হস্তান্তর করা হবে। কুলাউড়ায় নির্মাণাধীন ১১৩ টি ঘরের মধ্যে ৯৭টি ভূমিহীন পরিবারের হাতে ঈদের উপহার হিসেবে জমির দলিল ও গৃহ হস্তান্তর করা হবে। প্রতিটা ঘরে ব্যয় ধরা হয়েছে ২ লক্ষ ৫৯ হাজার ৫০০ টাকা। ঘরে বিদ্যুৎ ও নিরাপদ পানির ও সুব্যবস্থা রয়েছে উপকার ভোগীদের জন্য। তাছাড়া উপকারভোগীর তালিকা যাচাইবাছাই করা হয়েছে স্বচ্ছতার সাথে।
রোববার (২৪ এপ্রিল) দুপুর ১২ ঘটিকায় উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম ফরহাদ চৌধুরী প্রেস বিফ্রি করে সাংবাদিকদের বিষয়টি অবহিত করেন। এসময় কুলাউড়ায় কর্মরত সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

ইউএনও এটিএম ফরহাদ চৌধুরী জানান, কুলাউড়ার বরমচালে ২৪ টি, ব্রাহ্মণবাজার ১৪ টি, ভাটেরার ইসলাম নগরে ২৬টি, পৃথিমপাশার আলীনগরে ২১টি, মুড়াইছড়ায় ১৪টি, ও হাজীপুরের বিলেরপারে ১২টিসহ ৯৭টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মধ্যে এ গৃহ প্রদান করা হবে। ২৬ এপ্রিল মঙ্গলবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উক্ত কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরে ঘরগুলো উপকারভোগীদের হাতে হস্তান্তর করা হবে। এর আগে ১ম পর্যায়ে ১১০ ও দ্বিতীয় পর্যায়ে ১০০টি গৃহ গৃহহীন পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। তিনি বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উল্লেখযোগ্য অর্জন হচ্ছে ভ‚মিহীন ও গৃহহীনদের গৃহ প্রদান করা। প্রধানমন্ত্রীর সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে আমরা সর্বোচ্চ নিষ্টার সাথে কাজ করে যাচ্ছি। গৃহ প্রদানে আমরা স্থানীয় ভাবে প্রথমে প্রত্যেক ইউনিয়নে জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে বৈঠক করে তালিকা করেছি। পরে প্রশাসনের পক্ষ থেকে আলাদা যাচাই-বাছাই করে প্রকৃত উপকারভোগীদের তালিকা স্বচ্ছতার ভিত্তিতে প্রণয়ন করেছি।

 

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..