1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
  3. admin@mkantho.com : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:১২ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
* বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শনে সিলেটে প্রধানমন্ত্রী   *  বন্যা নিয়ে দুশ্চিন্তার কিছু নেই, সরকার সব ব্যবস্থা নিয়েছে : প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ আজ, গুরুত্ব পাবে যেসব বিষয়

  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৭২ বার পঠিত

অনলাইন ডেস্ক: জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৭তম অধিবেশনে আজ শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বাংলায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  স্থানীয় সময় বিকাল ৪টা থেকে বিকেল সাড়ে ৫টার মধ্যে (বাংলাদেশ সময় শনিবার দিবাগত রাত ২টা থেকে রাত সাড়ে ৩টা) প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের সময় নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের প্রেস উইং জানিয়েছে।

প্রেস উইং সূত্রে জানা গেছে, প্রতিবারের মতো এবারও প্রধানমন্ত্রী বাংলায় বক্তৃতা দেবেন। প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধে টেকসই সমাধানের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নিজস্ব মতামত তুলে ধরবেন। এছাড়া টিকা ও প্রতিষেধকের ন্যায্য বণ্টন, রোহিঙ্গা সংকটের সুষ্ঠু সমাধান, নিরাপদ অভিবাসন, জলবায়ূ ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করবেন প্রধানমন্ত্রী। 

এদিকে, বর্তমান বিশ্ব প্রেক্ষাপটে তার এবারে ভাষণে কোন কোন বিষয় গুরুত্ব পাবে, সে বিষয়ে একটি ধারণা দিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন। মঙ্গলবার রাতে নিউ ইয়র্কে এক ব্রিফিংয়ে এক সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, বিশ্বে শান্তি ও স্থিতিশীলতা নিশ্চিতের বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর এবারের বক্তৃতায় প্রাধান্য পাবে।

 

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এইবারে আমাদের প্রধানমন্ত্রী যে বক্তব্য দেবেন, সেটায় আমাদের একটি বড় ইস্যু হবে গিয়ে, এই মাল্টিল্যাটারালিজমে আমরা জোর দেব। আমরা শান্তির জন্য জোর দেব। আমরা বলব যে, যত ধরনের সংঘাত আছে সেই সংঘাত থেকে উত্তরণের বড় পথটা হচ্ছে আলাপ আলোচনা, শান্তিপূর্ণভাবে সমাধান। নতুবা বিশ্বে একটা বিভীষিকাময়…। পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, সাধারণ মানুষের মঙ্গলের জন্যে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন শান্তি ও স্থিতিশীলতা, সে কথাই প্রধানমন্ত্রী এবার বিশ্ব নেতাদের মনে করিয়ে দেবেন।  বহুপাক্ষিকতা, করোনাভাইরাস মহামারী, বাংলাদেশের উন্নয়ন প্রচেষ্টার পাশপাশি জলবায়ু বিষয়েও প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্য জাতিসংঘে তুলে ধরবেন বলে জানান মোমেন।

তিনি বলেন, সব সময় আমরা বলে থাকি, আমাদের পৃথিবীকে বাঁচাতে হবে এবং এই পৃথিবীকে বাঁচানোর জন্যে যে জিনিস দরকার- এক, যে গ্লোবাল টেমপারেচার মাস্ট নট এক্সিড…।  পৃাথবীকে বাঁচানোর জন্যে যে প্যারিস এগ্রিমেন্ট হয়েছিল, বলেছিল প্রতিবছর ১০০ মিলিয়ন ডলার দেবে, এখনও এটার চেহারা দেখিনি। সেটার জন্য তাগাদা দেব। লাভ ক্ষতির কথা আমরা উচ্চারণ করব।

মোমেন বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বাংলাদেশে যে সমস্যা হয়, তা সমাধানে সরকার তার সাধ্য মত চেষ্টা চালালেও বাংলাদেশ প্রত্যাশা করে, যারা এই বিপদের জন্য দায়ী, তারা যেন জলবায়ু পরিবর্তনে কারণে ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের দায়িত্বের ভাগ নেয়। প্রধানমন্ত্রী তার বক্তেব্য সে কথাও তুলে আনবেন। বাংলাদেশ করোনাভাইরাস মহামারী ‘খুব ভালোভাবে’ মোকাবেলা করেছে এবং বাংলাদেশ এ দিক দিয়ে পৃথিবীতে সামনের সারিতে আছে, শেখ হাসিনার বক্তব্যে সে কথাও আসবে বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।তিনি বলেন, কোভিড মহামারীর মধ্যে পার্টনারশিপটা ভালো কাজ করেছে। সেটাও আমরা তুলে ধরব।  মহামারীর পরও বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে যথেষ্ট সাফল্য অর্জন করেছে এটার কথা এবং সেজন্য বাংলাদেশ কী ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে সেটাও তুলে তিনি ধরবেন। বিভিন্ন রকম প্রণোদনা আমাদের দিতে হয়েছে। সেগুলোর কথাও আমরা সেখানে তুলে ধরব।

বাংলাদেশে ভূমিহীন-গৃহহীন মানুষকে জমিসহ আওয়ামী লীগ সরকার ঘর করে দিচ্ছে, সে কথা প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘে বলবেন। মোমেন বলেন, আমরা একটা আদর্শ সৃষ্টি করেছি ‍গৃহায়ণে। মানুষকে বাড়ি দিচ্ছি এবং একটা জীবন দিচ্ছি। এইটা আমরা একটা অত্যন্ত ভালো কাজ করেছি, সেটা আমরা পৃথিবীর কাছে তুলে ধরব।পরবর্তী কর্মসূচি অনুযায়ী শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকালে প্রবাসীদের দেওয়া নাগরিক সংবর্ধনায় ভার্চুয়াল যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ এই সংবর্ধনার আয়োজন করেছে।  রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) ওয়াশিংটন ডিসির উদ্দেশে নিউইয়র্ক ছেড়ে যাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ১ অক্টোবর পর্যন্ত তিনি ওয়াশিংটন ডিসিতে অবস্থান করবেন। এসময় সেখানে বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নেবেন তিনি।

 

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..