1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
  3. admin@mkantho.com : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০৮:৩৯ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
মৌলভীবাজারের ৫টি রেলওয়ে স্টেশন বন্ধ থাকায় এখন ভুতুরে বাড়ি: যাত্রী দুর্ভোগ চরমে: চুরি ও নষ্ট হচ্ছে রেলওয়ের মুল্যবান সম্পদ,নতুন বছরে দৃঢ় হোক সম্প্রীতির বন্ধন, দূর হোক সংকট: প্রধানমন্ত্রী. আজ রোববার উদযাপন হবে বই উৎসব. দুর্গম এলাকায় বিকল্প ব্যবস্থায় নতুন বই পাঠানো হবে: শিক্ষামন্ত্রী, নতুন বছরে নতুন শিক্ষাক্রম চালু হচ্ছে : শিক্ষামন্ত্রী, নতুন আশা নিয়ে মধ্যরাতে বরণ করা হবে ২০২৩ সাল, সিডনিতে আতশবাজির মধ্য দিয়ে ‘নিউ ইয়ার’ বরণ, ইংরেজি নববর্ষ উদযাপনে পুলিশের কড়াকড়ি,আবারও প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা, সম্পাদক হলেন শ্যামল ,নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে কুয়াকাটায় পর্যটকের ঢল

এখনই কারামুক্ত হতে পারছেন না ফখরুল-আব্বাস

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৯ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ৩৪ বার পঠিত

ডেস্ক রিপোর্ট : বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের কারামুক্তির জন্য বেইলবন্ড (জামিননামা) দাখিল করা হয়নি, কারণ আপিল বিভাগের আদেশের কপি এখনও প্রকাশ হয়নি। সব বিচারপতি এটি স্বাক্ষর করেননি। তবে কবে নাগাদ স্বাক্ষর হবে এটিও জানা যায়নি। এজন্য কখন এই দুই নেতা কারামুক্ত হবেন তা নিয়ে রয়েছে অনিশ্চিতয়তা।
সোমবার (৯ জানুয়ারি) এমনটাই জানিয়েছেন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম সুপ্রিম কোর্ট বার ইউনিটের সাধারণ সম্পাদক গাজী কামরুল ইসলাম সজল।

তিনি বলেন, কবে নাগাদ আপিল বিভাগের আদেশের কপি স্বাক্ষর হবে তা আমরা জানি না। বিচারপতিরা স্বাক্ষর করলে এরপর আদেশের কপি নামবে। কারাগারে যাবে, তারপর কারামুক্ত হবেন দলের এই দুই শীর্ষ নেতা। সেই পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে আমাদের।
এর আগে গতকাল রোববার (৮ জানুয়ারি) সকালে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে বিএনপির আইনবিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল বলেন, যেহেতু আমাদের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেব ও দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের বিরুদ্ধে অন্য কোনো মামলা নেই। তাই তাদের কারামুক্তিতে বাধা নেই, এজন্য আমরা আমরা আজকেই এই দুই নেতার কারামুক্তির জন্য বেইলবন্ড দাখিল করব। যাতে তারা খুব শিগগিরই কারামুক্ত হতে পারেন।
ওইদিন নাশকতার অভিযোগে দায়ের করা এক মামলায় হাইকোর্টের দেওয়া জামিন বহাল করেছেন আপিল বিভাগ। একই সঙ্গে আগামী ৩০ দিনের মধ্যে এ বিষয়ে হাইকোর্টের দেওয়া রুল নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। এই দুই নেতার জামিননামা দাখিল না করতে চেম্বার আদালতের আদেশও বাতিল করা হয়েছে। যার ফলে তাদের কারামুক্তিতে কোনো ধরনের বাধা রইলো না বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।
রোববার (৮ জানুয়ারি) প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের চার বিচারপতির আপিল বেঞ্চে এই আদেশ দেন।
এদিন আদালতের কার্যতালিকায় এক নম্বর আইটেমে ছিল ফখরুল ও আব্বাসের জামিন শুনানি। সকাল ৯টার পরেই জামিন আবেদনের শুনানি শুরু হয়। ৯ টা ৪৯ মিনিট পর্যন্ত শুনানি করা হয় এই দুই নেতার জামিন আবেদন।
আদালতে আসামিপক্ষে শুনানি করেন সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সভাপতি ও সিনিয়র আইনজীবী জয়নুল আবেদীন।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..