1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
ব্রেকিং নিউজ :

অপু ও মাহির বিবাহ বিচ্ছেদ, যা বললেন স্বামী

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৪ মে, ২০২১
  • ২৪ বার পঠিত

বিনোদন ডেস্ক : ২০১৬ সালের ২৫ মে সিলেটের ব্যবসায়ী পারভেজ মাহমুদ অপুকে বিয়ে করেছিলেন ঢাকাই ছবির অন্যতম নায়িকা মাহিয়া মাহি। শুরু থেকেই তাদের দাম্পত্য জীবনে কলহ চলছে বলে গুঞ্জন চাউর হলেও মাহি সেসব উড়িয়ে দিয়েছেন। কিন্তু এবার নিজের ফেসবুক স্ট্যাটাসেই ডিভোর্সের ইঙ্গিত দিলেন জান্নাত খ্যাত নায়িকা।

২২ মে দিনগত রাতে স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদের বিষয়টি স্পষ্ট করে স্ট্যাটাস দেন মাহি। সেখানে তিনি শ্বশুরবাড়ির লোকজনের কাছে ক্ষমাও চান, এ সম্পর্ক ধরে না রাখতে পেরে। তিনি চান সাবেক স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির প্রতি সম্মানবোধটা বেঁচে থাকুক।

মাহি লিখেছেন, ‘এই পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো মানুষটার সাথে থাকতে না পারাটা অনেক বড় ব্যর্থতা। পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ শ্বশুরবাড়ির মানুষগুলোকে আর কাছ থেকে না দেখতে পাওয়াটা, বাবার মুখ থেকে মা জননী, বড় বাবার মুখ থেকে সুনামাই শোনার অধিকার হারিয়ে ফেলাটা সবচেয়ে বড় অপারগতা। আমাকে মাফ করে দিও। তোমরা ভালো থেকো। আমি তোমাদের আজীবন মিস করবো।’

এদিকে বিচ্ছেদ প্রসঙ্গে পারভেজ মাহমুদ অপু জানান, ‘আমরা পরস্পরের প্রতি সম্মানের জায়গাটা রেখে আলাদা হয়ে যাচ্ছি। এখন শুধু আনুষ্ঠানিক কাগজপত্র হওয়া বাকি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আসলে আমরা বুঝতে পেরেছি আমাদের একসঙ্গে পথচলাতে সমস্যা তৈরি হচ্ছে। এগুলোর সমাধান হচ্ছে না। তাই আলাদা হয়ে যাওয়াই ভালো।’

পুরো ব্যাপারটিতে দুই পরিবারের বয়োজ্যেষ্ঠরা কষ্ট পেয়েছেন। তারাও বোঝানোর চেষ্টা করেছেন জানিয়ে অপু বলেন, ‘ও (মাহি) খুব ভালো একটা মানুষ। ওর (মাহি) বাবা-মা অনেক ভালো মানুষ। ওনারা (মাহির বাবা-মা) আমাকে নিজের ছেলের মতো ভালোবাসেন। তাছাড়া আমার পরিবারের সবাই ওকে (মাহি) অনেক ভালোবাসেন।’

এদিকে আগামী সোমবার (২৪ মে) তাদের ৫ম বিবাহবার্ষিকী। এর আগ মুহূর্তে এ ধরনের সিদ্ধান্ত কি পুনর্বিবেচনা করা যেতো না?

অপু জানান, ‘এই জন্যই আমরা চাই যাতে এ ব্যাপারে কোনো প্রকার নেগেটিভ কিছু না ছড়ায়। আমরা একসঙ্গে না থাকলেও আমাদের পরস্পরের প্রতি সম্মানবোধটা আজীবন থাকবে। শুধু একসঙ্গে থাকাটা হলো না!’

জানা যায়, ঈদের কিছুদিন আগে মাহি সিলেটে তার শ্বশুরবাড়ি যান। সেখানে একটি বিষয় নিয়ে স্বামী পারভেজ মাহমুদ অপুর সঙ্গে তার মনোমালিন্য হয়। এতে মাহি রাগ করে রাজশাহী চলে চান। তারপর থেকে দুজনের মধ্যে যোগাযোগ বন্ধ ছিল। এরপরই মাহি রোববার রাতে হুট করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..