1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
  3. admin@mkantho.com : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৩৬ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
আপডেট : ভুল তথ্য বা ভিডিও আপলোড, র‌্যাবের কঠোর বার্তা

সিলেটে গরমে অতিষ্ঠ জনজীবন, বাড়ছে হিট স্ট্রোকের ঝুঁকি

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৪ মে, ২০২১
  • ৫৩ বার পঠিত

সিলেট প্রতিনিধি :: সিলেটে জ্যৈষ্ঠর শুরুতে প্রচণ্ড গরমে বিপর্যস্ত জনজীবন। সোমবার (২৪ মে) দুপুর ১২ টা পর্যন্ত সিলেটে সবোর্চ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সেই হিসেবে সিলেটে বইছে মৃদু তাপদাহ। আর এই মৃদু তাপদাহে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন নগরের মানুষ। বিশেষ করে তীব্র এ গরমে বেশি ভোগান্তিতে পড়েছেন নিম্ন আয়ের মানুষ। অন্যদিকে গরম বাড়ার সাথে সাথে বাড়ছে হিট স্ট্রোকের ঝুঁকিও।

তবে প্রচণ্ড গরমে জনজীবন অতিষ্ঠ হলেও বৃষ্টি নিয়ে কোন সুখবর দিতে পারছে না আবহাওয়া অফিস। আবহাওয়া অফিস বলছে, আগামী ৩০ তারিখের আগে বৃষ্টিপাতের খুব একটা সম্ভাবনা নেই। আর বৃষ্টি হলেও তা খুব সামান্য পরিমাণে হতে পারে।

এদিকে সূর্যের প্রখর তাপে সাধারণ মানুষের জীবন ওষ্ঠাগত। বৃষ্টি না হওয়া আর প্রচণ্ড রোদে ঘর থেকে বের হতে পারছে না শ্রমিক, দিন মজুরসহ খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষগুলো। সামান্য স্বস্তির ও একটু শীতল পরিবেশের জন্য ছুটছে গাছের ছায়াতলে। আর অতিরিক্ত গরমে একটু শীতল পরিবেশ ও স্বস্তির জন্য বিভিন্ন শরবত ও পানীয়ের দোকানে ভিড় করছেন তারা।

আর গরমের সঙ্গে সঙ্গে হিট স্ট্রোকের ঝুঁকিও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ পরিচালক হিমাংশু লাল রায়।

তিনি বলেন, শরীরের তাপমাত্রা অস্বাভাবিক মাত্রায় বেড়ে যাওয়া অর্থাৎ শরীরের তাপমাত্রা ১০৪ ডিগ্রি ফারেনহাইট (৪০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড) বা তার চেয়ে বেশি হওয়া হিট স্ট্রোকের অন্যতম লক্ষণ। এছাড়া আরও বেশ কিছু লক্ষণ আছে। তবে হিট স্ট্রোকের ঝুঁকি এড়াতে গরমের সময় শরীরকে পানিশূন্য হতে দেওয়া যাবে না বলে মনে করেন এ চিকিৎসক।

তিনি বলেন, শরীরে পানির পরিমাণ স্বাভাবিক রাখতে প্রচুর পানি, ডাবের পানি, ওরালস্যালাইন পান করতে হবে।

সিলেট আবহাওয়া অফিসের জ্যৈষ্ঠ আবহাওয়াবিদ সাঈদ আহমদ চৌধুরী বলেন, সোমবার ১২ টা পর্যন্ত তাপমাত্রা ছিল ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এটা সর্বোচ্চ ৩৭ ডিগ্রি পর্যন্ত উঠার সম্ভাবনা আছে বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, গতকাল রেকর্ড পরিমাণ তাপমাত্রা রেকর্ড হলেও আজ সোমবার (২৪ মে) থেকে তাপমাত্রা কিছুটা কমতে শুরু করেছে। চলতি মাসে আর তাপমাত্রা বাড়ার সম্ভাবনা নেই।

এর আগে গতকাল রোববার (২৩ মে) সিলেটে মে মাসের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৭.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা ১৫ বছরের রেকর্ড তাপমাত্রা তাপমাত্রা ছিল বলে জানিয়েছিল আবহাওয়া অফিস। এর আগে ২০০৬ সালের মে মাসে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছিলো ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এদিকে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, শ্রীমঙ্গলসহ, নোয়াখালী, চাঁদপুর, কুমিল্লা, রাঙামাটি, সীতাকুণ্ড, নোয়াখালী, ফেনী, রাজশাহী, পাবনা ও ঢাকা, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে। দিন ও রাতের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

তবে আগামী ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং খুলনা, রাজশাহী ও ঢাকা বিভাগের দুই-এক জায়গায় দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্য এলাকার আকাশ আংশিক মেঘলাসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..