1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
ব্রেকিং নিউজ :
 করোনা আপডেট :   করোনায় আরও ৪৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৩২২

কুলাউড়ায় যানজট নিরসনে টাস্কফোর্সসহ তিনটি কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২ জুন, ২০২১
  • ১৮ বার পঠিত

কুলাউড়া প্রতিনিধি : মৌলভীবাজারের কুলাউড়া পৌরশহরে দীর্ঘদিনের যানজট নিরসন হবে খুব শ্রীঘ্রই। যানজট নিরসনে এক সপ্তাহের মধ্যে টাস্কফোর্সসহ তিনটি কমিটি গঠন এবং শহরের সড়কের ওপর অবৈধ স্ট্যান্ড অপসারণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। বুধবার (২ জুন) দুপুরে কুলাউড়া উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা পরিষদের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত যানজট নিরসনের মতবিনিময় সভায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।
মতবিনিময় সভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম ফরহাদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ একেএম সফি আহমদ সলমান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম রেনু, পৌর মেয়র অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ, কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিনয় ভূষন রায়।
সভায় পৌর মেয়র অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ বলেন, পৌর শহরকে যানজট মুক্ত করতে প্রধান সড়কের মধ্যে অবস্থিত সিএনজি অটোরিক্সা স্ট্যান্ড শহরের ভিতর থেকে অপসারণ করা হবে। সিএনজি অটোরিক্সা স্ট্যান্ডের জন্য শহরের উত্তর পাশে কুলাউড়া হাসপাতালের সম্মুখে এবং উছলাপাড়ায় সড়ক ও জনপদ বিভাগের জায়গায় দুটি স্ট্যান্ড নির্ধারণ করা হয়েছে। হাসপাতালের সম্মুখে থাকা ট্রাক স্ট্যান্ড উত্তর কুলাউড়ায় স্থানান্তরিত করা হবে।
তিনি জানান, ব্যাটারিচালিত অটোরিক্সা নিয়ন্ত্রণে পৌর শহরে ২৫০টি অটোরিক্সা চলাচলের অনুমোদন দেওয়া হবে। এর বেশি ব্যাটারিচালিত অটোরিক্সা শহরে চলতে পারবেনা। এছাড়াও শহরে যানজট কমাতে ছোট্ট যানবাহন চলাচলে চাঁতলগাঁও হয়ে মাগুরা ও সাদেকপুর সড়কটিকে বিকল্প সড়ক নির্ধারণ করা হয়েছে। এই সড়ক দিয়ে শহরের ভিতর প্রবেশ না করে পার্শ্ববর্তী উপজেলার ছোট গাড়িগুলো যাতায়াত করবে। হকারদের পুনর্বাসনে স্থায়ী পরিকল্পনা করা হচ্ছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম ফরহাদ চৌধুরী বলেন, সবার মতামতের ভিত্তিতে একটি টাস্কফোর্স গঠন করা হবে। এছাড়াও হকার পুনর্বাসন ও সড়কের ওপর থাকা স্ট্যান্ড এবং অবৈধ স্থাপনা অপসারণসহ শহরের যানজট নিরসনে সিদ্ধান্ত নিতে আরো দুটি কমিটি গঠন করা হবে। টাস্কফোর্স কমিটিতে আমিসহ থানার ওসি সকল বিষয় মনিটরিং করবো। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে এসব কমিটি কাজ শুরু করবে। আশা করছি সকলের সহযোগিতায় খুব শীঘ্রই কুলাউড়ার যানজট নিরসনের স্থায়ী সমাধান হবে।
এছাড়া বক্তব্যে দেন উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেহা ফেরদৌস চৌধুরী পপি, রাজনীতিবিদ নবাব আলী ওয়াজেদ খান বাবু, ইয়াকুব তাজুল মহিলা ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এমদাদুল ইসলাম ভুট্টো, জাসদ নেতা মইনুল ইসলাম শামীম, বিএইচ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল কাইয়ূম, পৌর কাউন্সিলর হারুনুর রশীদ, ট্রাফিক পুলিশের ইনচার্জ মো.সিরাজ, কুলাউড়া ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান আখই, সাংবাদিক আজিজুল ইসলাম, বাস-মিনিবাস পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন কুলাউড়া শাখার সাধারণ সম্পাদক রাজুম আলী রাজু, সিএনজি অটোরিক্সা পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন কুলাউড়া শাখার সাধারণ সম্পাদক সোহাগ মিয়া প্রমুখ।
সভায় সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা তাদের বক্তব্যে বলেন, শহরের যানজটের মূল কারণ হলো সিএনজি অটোরিকশা ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা। রাস্তার দু’পাশে অবৈধভাবে জায়গা দখল করে স্ট্যান্ড বানিয়ে রেখেছে এসব যানবাহনের চালকেরা। তারা কারো কথা শুনতে চায় না। তারা যত্রতত্র ভাবে গাড়ি পার্কিং করে যানজট লাগাচ্ছে এতে করে মানুষের চলাফেরায় নানা ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। এসব সমস্যা সমাধানে পৌর কর্তৃপক্ষকে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা পালন করতে হবে। এছাড়া যানজট নিরসনে শহরের মূল সড়ক বাদে বিকল্প সড়ক চালু করার দাবি জানিয়েছেন বক্তারা।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..