1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

ইউএনওকে বনাম চেয়ারম্যান দন্ধ প্রকাশ্য: রাজনগর উপজেলা পরিষদের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন নিয়ে জটিলতা !

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৩১ জুলাই, ২০২৩
  • ৩৫৫ বার পঠিত

স্টাফ রিপোটার: রাজনগরে উপজেলা পরিষদের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধনের আগেই নিজ অফিসে প্রবেশ করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহান খান। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বাধা দেয়ার পরও চেয়ারম্যান নিজেই অফিসে ঢুকে পড়েছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। যদিও কয়েকবার উদ্বোধনের উদ্যোগ নেয়ার পরও নেম ফলকে চেয়ারম্যানের নাম রাখা না রাখা নিয়ে জটিলতায় দীর্ঘ এক বছর ধরে ভবনটি উদ্বোধন করা যাচ্ছিল না। অবশেষে সোমবার দুপুরে দোয়ার মাধ্যমে উপজেলা চেয়ারম্যান পরিষদের স্টাফদের নিয়ে নতুন ভবনে প্রবেশ করেন।
উপজেলা পরিষদ ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, রাজনগর উপজেলা পরিষদের নবনির্মিত সম্প্রসারিত প্রাশাসনিক ভবন ও হলরুম সাড়ে ৭ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করে মিম এন্টারপ্রাইজ নামে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। গত ২০২২ সালের জুন মাসে হস্তান্তর করার পর ৭ জুলাই উদ্বোধনের দিনক্ষণ ঠিক করে উপজেলা পরিষদ। ভবনটির উদ্বোধনী নাম ফলকে চেয়ারম্যানের নাম দেয়া না দেয়ার বিষয় নিয়ে চেয়ারম্যান পক্ষ ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে।
তবে, করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বৃদ্ধি ও বন্যা পরিস্থিতির কথা উল্লেখ করে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান স্থগিতের জন্য উদ্বোধনের ৩দিন আগে (৪ জুলাই) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে পত্র দেন উপজেলা চেয়ারম্যান। পরে ৬ জুলাই দুপুর ২টায় জরুরী সভায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।
এদিকে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান খান ৫ ফেব্রুয়ারী থেকে ছুটিতে ইংল্যান্ড থাকাবস্থায় গত ১৬ ফেব্রুয়ারী সংসদ সদস্য নেছার আহমদ ভবনটি উদ্বাধনের তারিখ নির্ধারণ করে ইউএনওকে পত্র দেন। এসময় ইউএনও ভবনটি উদ্বোধনের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উপজেলা প্রকৌশলীকে নির্দেশনা দেন। এনিয়ে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলাল মিয়া হাইকোর্টে একটি রীট পিটিশন (নং ২৪০৯/২৩) করেন। পরবর্তীতে তা আবার প্রত্যাহারও করে নেন। এছাড়াও চেয়ারম্যান দেশের বাহিরে যাওয়ার পূর্বে ইউএনওকে দেয়া পত্রানুযায়ী উদ্বোধনের বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা চেয়ে স্থাণীয় সরকার ও সমবায় মন্ত্রনালয়ে পত্র পাঠান। ওই পত্রের আলোকে চেয়ারম্যান দেশে না আসা পর্যন্ত উদ্বোধন স্থগিত রাখার নির্দেশনা দেয় মন্ত্রনালয়। এতে আবারো উদ্বোধণ আটকে যায়।
চেয়ারম্যান দেশে আসার পর ভবনটি উদ্বোধনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য জেলা প্রশাসকের কাছে গত ১০মে একটি চিঠি পাঠান। প্রায় দুই মাস পেরিয়ে গেলেও উদ্বোধনের কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় সোমবার দুপুরে উপজেলা চেয়ারম্যান নতুন ভবনে নিজের স্টাফসহ অফিসে ঢুকে পড়েন। এসময় তার বলয়ে থাকা আওয়ামীলীগ, যুবলীগের স্থানীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
এব্যাপারে উপজেলা চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান খান বলেন, সরকার সাড়ে কোটি টাকা ব্যয়ে ভবনটি নির্মাণ করেছে। ভবনটি এমপি মহোদয়ের সঙ্গে পরামর্শ করে উদ্বোধন করা হবে। এক বছর থেকে ফেলে রাখায় বিভিন্ন মালামাল নষ্ট হচ্ছে, বারান্দায় মল ত্যাগ করছে রাতের আধারে। এছাড়াও বর্তমান কার্যালয়ে সাপের উপদ্রব দেখা দিয়েছে। তাই আইনি কোন বাধা না থাকায় নতুন ভবনে অফিসের কার্যক্রম শুরু করেছি। এছাড়াও আমাকে কেউ বাধাও দেয়নি।
রাজনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারজানা আক্তার মিতা জানান, আমি জানার সঙ্গে সঙ্গে বাধা দিয়েছি। অনেকবার ফোনও করেছি তিনি ফোন ধরেন নি। বর্তমান কার্যালয়ে মশা ও সাপের উপদ্রব বেড়ে যাওয়ায় নতুন কার্যালয়ে উঠেছেন বলে জেলা প্রশাসক মহোদয়কে তিনি ব্যখ্যা দিয়েন।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..