1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৮:৪৬ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

হাথুরুর ভাবনায় কেন নেই মাহমুদউল্লাহ?

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৭ আগস্ট, ২০২৩
  • ১৩৩ বার পঠিত

ডেস্ক রিপোর্ট : শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ফিটনেস টেস্ট শেষ হয়েছে ক্রিকেটারদের। গত দুই দিনে মিরপুরে জিম, রানিং আর ফুটবল নিয়ে নিজেদের মতো করেই সময় কাটিয়েছেন এশিয়া কাপের প্রাথমিক দলে থাকা ক্রিকেটাররা। ৩২ সদস্যের প্রাথমিক দল এরই মধ্যে ছোট হয়ে আসার কথা ছিল। নতুন ওয়ানডে অধিনায়কের নামসহ দল দিতে চায় বিসিবি। সে কারণেই মূলত অপেক্ষা।

গতকাল বিসিবির নির্বাচক প্যানেলের এক সদস্য বলছিলেন, ‘ঠিক জানি না, বোর্ড কবে দল দিতে চাচ্ছে। তবে আমাদের দিক থেকে দল তৈরি।’ গতকাল একসঙ্গে তিন নির্বাচকই বিসিবিতে এসেছেন। বোঝাই যাচ্ছে, দল নিয়ে কিছুটা ব্যস্ত সময় যাচ্ছে তাঁদের। স্কিল ক্যাম্পের আগে ২০-২২ জনের একটি দল দিতে হবে নির্বাচকদের। ১২ আগস্টের মধ্যে এই দলকে আরও ছোট করে আনতে হবে। এশিয়া কাপের মূল দল জমা দিতে হবে ১২ আগস্টের মধ্যে। বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস এই প্রতিবেদককে বলেছেন, ‘২২ জনের দল দু-এক দিনের মধ্যে দিয়ে দেওয়া হবে। আর ১২ আগস্টের আগেই আশা করি (চূড়ান্ত দল) হয়ে যাবে।’

ছোট হয়ে আসা দলে খুব বেশি চমকের সুযোগ নেই। সর্বশেষ আফগানিস্তান সিরিজের দলে থাকা বেশির ভাগ ক্রিকেটারই থাকার কথা। তবু একটা নাম বিশেষভাবে আলোচিত—মাহমুদউল্লাহ। দল ঘোষণার সময় যত ঘনিয়ে আসছে, তাঁকে নিয়ে ততই আলোচনা বাড়ছে। দ্বিতীয় মেয়াদে চন্ডিকা হাথুরুসিংহে বাংলাদেশে ফেরার পর মাহমুদউল্লাহ দলের বাইরে। গত মার্চে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে তাঁকে ‘বিশ্রাম’ দেওয়া হয়। পরের কয়েকটি সিরিজেও অভিজ্ঞ ব্যাটারকে আর দেখা যায়নি। বিসিবির পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন একাধিকবার সংবাদমাধ্যমে বলেছেন, ‘মাহমুদউল্লাহকে যদি এশিয়া কাপের দলে রাখার ভাবনাই থাকত, তাহলে আগের সিরিজগুলোয় সুযোগ দেওয়া লাগত তাকে। অন্তত সর্বশেষ আফগানিস্তানের বিপক্ষে।’ আফগানিস্তানের বিপক্ষে যখন ওয়ানডে সিরিজ হয়েছে, মাহমুদউল্লাহ তখন হজে ছিলেন। বিষয়টি অবশ্য তিনি বিসিবিকে জানিয়ে গেছেন।

গত কয়েক মাসে ঘরোয়া ক্রিকেটেও মাহমুদউল্লাহ এমন কিছু করেননি, যেটা তাঁর ফেরার দাবি জোরালো করবে। মাহমুদউল্লাহর বিপক্ষে যাচ্ছে তাঁর স্লো ফিল্ডিংও। যেটা গত কয়েক সিরিজে বাংলাদেশ দলের সাফল্যের পেছনে বড় ভূমিকা রাখছে। এখানে সাত নম্বরে মাহমুদউল্লাহর সম্ভাব্য ‘প্রতিদ্বন্দ্বী’ আফিফ হোসেন, শামীম হোসেন কিংবা মোসাদ্দেক হোসেন ঢের এগিয়ে থাকছেন। আর তিনি আগের মতো লোয়ার মিডল অর্ডারে গিয়েই ঝড় তুলতে পারেন না বলে মনে করা হচ্ছে। তুলনামূলক স্লো ফিল্ডার, গিয়েই স্লগ করতে পারছেন না, সর্বশেষ আফগানিস্তান সিরিজে ছিলেন না—এসব মাহমুদউল্লাহর বিপক্ষে গেলেও তাঁর সবচেয়ে ‘প্লাস পয়েন্ট’ হচ্ছে অভিজ্ঞতা। সূত্র জানাচ্ছে, এ কারণেই এখনো মাহমুদউল্লাহকে একেবারে সমীকরণের বাইরে রাখতে চাইছেন না নির্বাচকেরা। দল ঘোষণায় কিছুটা দেরি হওয়ার পেছনে এটিও একটি কারণ। তবে নির্বাচকেরা মনে করেন, হাথুরুর ভাবনায় মাহমুদউল্লাহ যদি না থেকেও থাকেন, তা পুরোটাই ক্রিকেটীয় কারণে; এখানে ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দের বিষয় নেই। আরেক নির্বাচক তাই বলছিলেন, ‘কোনো কোচ যদি কাউকে বাদও দিতে চায়, তাতে ব্যক্তিগত বিষয় থাকে না। সবটাই ক্রিকেটীয়।’

সবাই যখন এশিয়া কাপের দল ঘোষণার অপেক্ষায়, তখন তামিম ইকবালের ব্যস্ততা চোট কাটিয়ে ওঠায়। ওয়ানডে অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেওয়ার দুদিন পর গতকাল বিসিবিতে এসেছিলেন তিনি। বিসিবির মেডিকেল বিভাগের সঙ্গে কথা বলেছেন তামিম। এক সপ্তাহের পুরোপুরি বিশ্রামের পর পুনর্বাসনপ্রক্রিয়ার কাজ শুরু করবেন তিনি।

যেমন হতে পারে এবারের এশিয়া কাপের প্রাথমিক দলটি-

লিটন দাস, নাইম শেখ, নাজমুল হোসেন শান্ত, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, আফিফ হোসেন ধ্রুব, তাওহিদ হৃদয়, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান, এবাদত হোসেন, হাসান মাহমুদ, শরিফুল ইসলাম, তানজিদ তামিম, রাকিবুল হাসান, মাহমুদুল হাসান জয়, তানজিম সাকিব, জাকির হাসান, সৌম্য সরকার, মোসাদ্দেক হোসেন, শেখ মাহদি, সাইফ হাসান।

 

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..