1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৪:২৬ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

চেন্নাইকে বিধ্বস্ত করে জয়ে ফিরলো লখনৌ

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২০ এপ্রিল, ২০২৪
  • ২৭ বার পঠিত

ডেস্ক রিপোর্ট ::চলতি আইপিএলে প্রথম চার ম্যাচের তিনটিতে জয় তুলে নিয়ে দুর্দান্ত শুরু করেছিল লখনৌ সুপার জায়ান্টস। এরপর টানা দুই ম্যাচের হারের তিতো স্বাদ পেয়েছে লোকেশ রাহুলের দল। তবে নিজেদের সপ্তম ম্যাচে চেন্নাইকে বিধ্বস্ত করে জয়ে ফিরেছে লখনৌ। ঘরের মাঠে চেন্নাইকে আট উইকেটে হারিয়েছে রাহুল-পুরানরা।

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) আগে ব্যাট করে লখনৌকে ১৭৭ রানের চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য দেয় চেন্নাই। জবাব দিতে নেমে ছয় বল এবং আট উইকেট হাতে থাকতেই জয় তুলে নেয় লখনৌ। এতে টানা দুই জয়ের পর হারের তিতো স্বাদ পেলো চেন্নাই।

চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দুর্দান্ত শুরু করে লখনৌয়ের দুই ওপেনার কুইনটন ডি কক ও লোকেশ রাহুল। দুজনের ব্যাটে ভর করে উইকেট না হারিয়ে পাওয়ার প্লেতে ৫৪ রান তোলে লখনৌ।

৩১ বলে ফিফটি তুলে নেন লখনৌ অধিনায়ক। অপর প্রান্তে ব্যাট চালাতে থাকেন ডি ককও। ৪১ বলে ফিফটি তুলে নেন এই প্রোটিয়া ব্যাটার। তবে ১৫তম ওভারে শেষ বলে ডি কককে ফিরিয়ে চেন্নাইকে ব্রেকথ্রু এনে দেন মোস্তাফিজুর রহমান। এরপর রাহুলকে সঙ্গ দেন নিকোলাস পুরান।

৫৩ বলে ৮৩ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে সাজঘরে ফেরেন রাহুল। জাদেজার উড়ন্ত ক্যাচে আউট হন তিনি। কিন্তু ততক্ষণে জয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে যায় লখনৌ। শেষ পর্যন্ত মার্কাস স্টোইনিসের ৭ বলে ৮ রান এবং পুরানের ১২ বলের ২৩ রানের ইনিংসে ভর করে ছয় বল এবং আট উইকেট হাতে থাকতে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় লখনৌ সুপার জায়ান্টাস।

চেন্নাইয়ের হয়ে মোস্তাফিজুর রহমান এবং মাথিশা পাথিরানা একটি করে উইকেট নেন।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি চেন্নাইয়ের। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই ডাক আউট হন রাচিন রবিন্দ্র। এরপর গায়কোয়াড়কে সঙ্গে নিয়ে রান তুলতে থাকেন ওপেনিংয়ে ব্যাট করতে আশা আজিঙ্কা রাহানে।

১৩ বলে ১৭ রান করে গায়কোয়াড় আউট হলে ২৪ বলে ৩৬ রান করে তাকে সঙ্গ দেন রাহানে। এদিন ব্যাট হাতে আলো ছড়াতে পারেননি শিভাম ডুবে (৩) এবং সামার রিজভি (১)। ফলে দলীয় ৯০ রানেই পাঁচ উইকেট হারিয়ে বসে চেন্নাই।

কিন্তু এক প্রান্ত আগলে রেখে রান তুলতে থাকেন রবিন্দ্র জাদেজা। তাকে সঙ্গে দেন মঈন আলী। ২০ বলে ৩০ রান করে মঈন আলী আউট হলেও ৩৪ বলে ফিফটি তুলে নেন জাদেজা।

মঈনের বিদায়ের পর ব্যাটিংয়ে আসেন চেন্নাইয়ের প্রাণভোমরা মাহেন্দ্র সিং ধোনি। পিচে এসে রীতিমতো তাণ্ডব চালান এই ডান হাতি ব্যাটার। শেষ পর্যন্ত জাদেজার ৪০ বলে ৫৭ রান এবং ধোনির ৯ বলে ২৮ রানের ক্যামিও ইনিংসে ভর করে ১৭৬ রানের লড়াকু পুঁজি পায় পাঁচবারের চ্যাম্পিয়নরা।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..