1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

মৌলভীবাজারে যথাযোগ্য মর্যাদায় স্থানীয় শহীদ দিবস পালন

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ১০২ বার পঠিত

সালেহ আহমদ ::বিশ ডিসেম্বর মৌলভীবাজারের স্থানীয় শহীদ দিবস। মৌলভীবাজারবাসীর স্বজন হাঁরানোর একটি দিন। ১৯৭১ সালের এদিনে পুরো দেশ যখন বিজয়ের আনন্দে ভাসছিল, ঠিক তখনই মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে পাক হানাদারদের ফেলে যাওয়া মাইন বিস্ফেরাণে নিহত হন ২৪ জন ঘরে ফেরার অপেক্ষায় থাকা বীর মুক্তিযোদ্ধা।

দেশ স্বাধীন হওয়ার চারদিন পর মৌলভীবাজারে ১৯৭১ সালের ২০ ডিসেম্বর পাকিস্তানি বাহিনীর ফেলে যাওয়া মাইন বিস্ফোরনে সেই ২৪ জন মুক্তিযোদ্ধা স্মরণে স্থানীয় শহীদ দিবস পালন করা হয়েছে।

বুধবার (২০ ডিসেম্বর) দিবসটি পালন উপলক্ষে মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে শহীদদের স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

সমবেত কন্ঠে জাতীয় সংগীত ও শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন শেষে জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা জসীম উদ্দিন মাসুদ এর সঞ্চালনায় ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক ড. উর্মি বিনতে সালাম, পুলিশ সুপার মোঃ মনজুর রহমান (পিপিএম বার), অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) প্রভাংশু সোম মহান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরিন চৌধুরী, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মিছবাহুর রহমান, সাবেক জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোঃ জামাল উদ্দিনসহ প্রমূখ।

সাবেক জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোঃ জামাল উদ্দিন বলেন, মুক্তিযোদ্ধারা জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে এসে মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে স্থাপনকৃত মুক্তিযোদ্ধা হেড কোয়ার্টারে এসে আশ্রয় নিয়েছিলেন। উদ্দেশ্য ছিল এখানে কিছুদিন বিশ্রামের পর নিজ নিজ বাড়িতে ফিরে যাবেন। কিন্তু সেই সুযোগ আর কারও হয়নি। ১৯৭১ সালের ২০ ডিসেম্বর দুপুর বেলা আকষ্মিক বিদ্যালয় ভবনে মাইন বিস্ফোরণ ঘটলে মুহূর্তেই সবকিছু লণ্ডভণ্ড হয়ে যায়। মাইন বিস্ফোরণে ক্যাম্পে থাকা মুক্তিযোদ্ধাদের দেহ ছিন্নভিন্ন হয়ে বিভিন্ন স্থানে ছিটকে পড়ে। এসময় অর্ধশতাধিক মুক্তিযোদ্ধা হতাহত হন।

তিনি আরও বলেন, পরে মুক্তিযোদ্ধাদের ছিন্নভিন্ন দেহ জড়ো করে মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠের দক্ষিণপূর্ব প্রান্তে সমাহিত করা হয়। এরপর থেকেই মৌলভীবাজারবাসী ২০ ডিসেম্বর স্থানীয়ভাবে শহীদ দিবস হিসেবে পালন করে আসছেন।

২০ ডিসেম্বর ১৯৭১ সালে মৌলভীবাজারের মাইন বিস্ফোরণে যাদের নাম পাওয়া গেছে স্মৃতিস্তম্ভটিতে তাদের নাম লিখা আছে। তারা হলেন- সুলেমান মিয়া, রহিম বক্স খোকা, ইয়ানূর আলী, আছকর আলী, জহির মিয়া, ইব্রাহিম আলী, আব্দুল আজিজ, প্রদীপ চন্দ্র দাস, শিশির রঞ্জন দেব, সত্যেন্দ্র দাস, অরুণ দত্ত, দিলীপ দেব, সনাতন সিংহ, নন্দলাল বাউরী, সমীর চন্দ্র সোম, কাজল পাল, হিমাংশু কর, জিতেশ চন্দ্র দেব, আব্দুল আলী, নূরুল ইসলাম, মোস্তফা কামাল, আশুতোষ দেব, তরণী দেব ও নরেশ চন্দ্র ধর।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..