1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৫৫ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

দেখতে ‘অদ্ভুত’, কিন্তু দাম কোটির কাছে

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৯ জুন, ২০২১
  • ২৩০ বার পঠিত

বিনোদন ডেস্ক :: গ্র্যামির জন্য প্রিয়াঙ্কার এই বিশেষ পোশাক তৈরি করেছিলেন তামারা র‌্যাল্ফ ও মাইকেল রুশো। প্রিয়াঙ্কার ত্বকের রঙের সঙ্গে মিল রেখে ‘তুল’ দিয়ে বেঁধে রাখা ছিল সেই পোশাক। নেটের মতো থাকায় যা ক্যামেরায় ধরা পড়েনি। পোশাকের জন্য ৭৭ লাখ রুপি খরচ করেছিলেন নায়িকা।

প্রিয়াঙ্কা এখন শুরু বলিউডের নন, হলিউডেরও বটে। এখন তাকে হলি-বলির তারকা বলা হয়। আন্তর্জাতিক বিভিন্ন বড় বড় অনুষ্ঠানে প্রিয়ঙ্কা চোপড়া থাকছেন ফোকাসে।

সেসব অনুষ্ঠানে তার পোশাক ও সাজসজ্জা নিয়েও আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে। গ্র্যামি থেকে মেটগালা বা কোনো প্রোমোশনাল শুটে প্রিয়াঙ্কার পোশাক চলে এসেছে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে।

কিন্তু এসব পোশাককে ভক্ত-দর্শকদের অনেকে ‘অদ্ভুত’ বললেও নিজেকে সাজিয়ে তুলতে লাখ লাখ টাকা খরচ করতে হয়েছে প্রিয়াঙ্কাকে।

নিউ ইয়র্কের মেট্রোপলিটন মিউজিয়াম অফ আর্ট-এর বার্ষিক অনুষ্ঠান দ্য কস্টিউম ইনস্টিটিউট গালা। ‘মেটগালা’ নামে পরিচিত আয়োজনটি।

২০১৯ সালের মেটগালাতে প্রিয়ঙ্কার ‘ক্যাম্প লেডি’ সাজ নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় উঠেছিল নেট দুনিয়ায়।

স্বাভাবিকতার বাইরের সাজই ‘ক্যাম্প’-এর মূল ভাবনা। যে সাজের থাকবে নাটকীয়তা। সে ভাবনাকে তার পোশাক ও স্টাইলে ফুটিয়ে তুলেছিলেন প্রিয়াঙ্কা। কিন্তু নেটিজেনরা প্রিয়াঙ্কাকে বলেছেন ‘অদ্ভুতদর্শন প্রিয়াঙ্কা’।

 

মেটগালায় রুপালি ওই পোশাকটির জন্য প্রিয়ঙ্কাকে খরচ করতে হয়েছিল ৪৫ লাখ রুপি।

মেটগালাতেই ২০১৮ সালে প্রিয়াঙ্কা পোশাকের জন্য যথেষ্ট আলোচনায় ছিলেন। ওই বছর মেরুন রঙের গাউনের সঙ্গে মাথায় সোনালি রঙের টুপি লাগানো ছিল। মেরুন ভেলভেট ওই গাউন বানাতে সময় লেগেছিল ২৫০ ঘণ্টা এবং খরচ হয়েছিল ২২ লাখ রুপির মতো।

টুপির মতো তার ওপরের অংশের কারণেই পোশাকটি এত দামি ছিল। সোনালি রঙের ওই অংশে ছিল সোনা এবং মূল্যবান পাথর। হাতে বোনা হয়েছিল সেই টুপির মতো অংশটি।

২০২০ সালে গ্র্যামির মঞ্চেও প্রিয়ঙ্কার পোশাক নিয়ে সমালোচনা হয়েছিল সবেচেয়ে বেশি। ডিপ ভি-নেক লংগাউন বুকের অংশে কীভাবে ঠিক ছিল, সেই আলোচনায় মেতে উঠেছিলেন নেটিজেনরা।

গ্র্যামির জন্য প্রিয়াঙ্কার এই বিশেষ পোশাক তৈরি করেছিলেন তামারা র‌্যাল্ফ ও মাইকেল রুশো। প্রিয়াঙ্কার ত্বকের রঙের সঙ্গে মিল রেখে ‘তুল’ দিয়ে বেঁধে রাখা ছিল সেই পোশাক। নেটের মতো থাকায় যা ক্যামেরায় ধরা পড়েনি।

 

‘তুল’ হলো জরির মতো সূক্ষ্ম পাতলা কাপড়। এই সূক্ষ্ম পোশাকের জন্য ৭৭ লাখ রুপি খরচ করেছিলেন নায়িকা।

এক অনুষ্ঠানে গোলাপি রঙের লোমশ জ্যাকেট পরে হাজির হয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা। পিটার দুন্দাস ফক্সের জ্যাকেটটি তিনি কিনেছিলেন প্রায় ১৩ লাখ রুপিতে।

এই পোশাককে বেলুন ভাবা যাবে না। অনেক খরচ করতে হয়েছে এই পোশাক পেতে। এই বেলুনাকৃতির পোশাক প্রিয়াঙ্কা পরেছিলেন একটি প্রোমোশনাল শুটে। তবে প্রিয়াঙ্কার এই বেলুনাকৃতি পোশাকের দাম জানা যায়নি।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..