1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

দুর্দান্ত লড়াইয়ে জকোভিচকে বিদায় করে সেমিতে নাদাল

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১ জুন, ২০২২
  • ১৫৮ বার পঠিত

ক্রীড়া ডেস্ক : দুর্দান্ত এক ম্যারাথন লড়াই। এই লড়ায়ের শেষ কোথায়, কেউ যেন জানে না। ফরাসি ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালেই মুখোমুখি হয়েছিল বিশ্বের সেরা দুই টেনিস খেলোয়াড় রাফায়েল নাদাল এবং নোভাক জকোভিচ। একে অপরের বিপক্ষে লড়াই করলেন পাক্কা ২৫২ মিনিট। অর্থ্যাৎ ৪ ঘণ্টা ১২ মিনিট।

ম্যারাথন এই লড়াই শেষে বিশ্বের এক নম্বর তারকা নোভাক জকোভিচকে হারিয়ে দিলেন লাল মাটির কোর্টের সম্রাট নাদাল। চার ঘণ্টা ১২ মিনিটের লড়াই শেষে ৬-২, ৪-৬, ৬-২, ৭-৬ (৭-৪) ব্যবধানে জিতে ফরাসি ওপেনের সেমিফাইনালে উঠে গেলেন এই স্প্যানিশ তারকা।

বর্তমান বিশ্বের সেরা দুই টেনিস তারকার লড়াই শুরু হয়েছিল মে মাসে, শেষ হলো জুন মাসে এসে। এই দুই তারকার লড়াই দেখতে পুরো ক্রীড়া বিশ্বেরই নজর ছিল রোলা গাঁরোয়। ম্যাচ শুরুর আগে অনেকেই এগিয়ে রেখেছিলেন সার্বিয়ান তারকা জকোভিচকে।

কারণ তিনি বিশ্বের এক নম্বর। নাদালের চেয়ে অনেক বেশি ফিট। নাদাল নিজে চেয়েছিলেন জকোভিচের বিরুদ্ধে দিনের আলোয় খেলতে। রাত বাড়লে লাল সুরকির কোর্টে তার সমস্যা হবে বলেই মনে করেছিলেন নাদাল। অথচ ম্যাচ শুরু হওয়ার পর রাত বাড়ল। দর্শকরা চাদর মুড়ি দিলেন, আর দেখলেন কিভাবে ধীরে ধীরে খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসলেন লাল সুরকির সম্রাট।

প্রথম সেটে নাদাল প্রায় কোনও জায়গাই ছাড়েননি জোকোভিচকে। সার্বিয়ান তারকার বিপক্ষেখ ৬-২ ব্যবধানে প্রথম সেট জিতে নেন তিনি। সমস্ত চোট উপেক্ষা করে নাদাল নিজের সবটুকু দিয়ে লড়াই করতে নেমেছিলেন যেন। জোকোভিচ তাকে কোর্টে দৌড় করালেন, ব্যাকহ্যান্ড মারতে বাধ্য করলেন, তবু নাদাল লড়াই চালিয়ে গেলেন।

দ্বিতীয় সেটে নাদাল একটা সময় এগিয়েছিলেন ৩-০ ব্যবধানে। সেই সেটে চতুর্থ গেমটি জিতে নেন জকোভিচ। জয়ের পরেই তার মুখে দেখা গেল হাসি। প্রথমবার স্বস্তির হাসি জোকারের মুখে। নাদাল চিন্তিত। ডাবল্ ফল্ট করলেন। জকোভিচ ম্যাচে ফিরতে শুরু করলেন। দ্বিতীয় সেটে ৬-৪ ব্যবধানে জিতে হুঙ্কার ছাড়লেন জকোভিচ। নাদাল সমর্থকদের মনে শঙ্কা। ম্যাচ কি হাতছাড়া হতে চলেছে?

তৃতীয় সেটেই নাদাল বুঝিয়ে দিলেন কেন তাকে লাল সুরকির রাজা বলা হয়। সেই সেট জিততে নাদাল সময় নিলেন মাত্র ৪১ মিনিট। প্রথম থেকেই ঘামছিলেন নাদাল। বার বার ঘাম মুছছেন। অন্যদিকে জকোভিচ তিনটি সেট খেলে ফেললেও ক্লান্তিহীন। কিন্তু তিনিই রয়েছেন পিছিয়ে।

চতুর্থ সেটের খেলায় শুরুতেই ৩-০ এগিয়ে গেলেন জকোভিচ। সেখান থেকে ধীরে ধীরে ম্যাচে ফিরলেন নাদাল। একটা সময় সমতা ফেরালেন তিনি। ৫-৫ হল, ৬-৬ হল। ম্যাচ গড়াল টাইব্রেকারে। যত জয়ের দিকে এগোলেন, ততই আক্রমণাত্মক হয়ে উঠলেন নাদাল। অন্যদিকে জকোভিচের জিভ বেরিয়েছে। চার ঘণ্টা ১২ মিনিটের লড়াই শেষে হার তাকে ক্লান্ত করে দিয়েছে। টাইব্রেকারে ৪-৭ ব্যবধানে হারতেই সেমি ফাইনালে জায়গা করে নিলেন নাদাল।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..