1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
  3. admin@mkantho.com : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:৩৭ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
মৌলভীবাজারের ৫টি রেলওয়ে স্টেশন বন্ধ থাকায় এখন ভুতুরে বাড়ি: যাত্রী দুর্ভোগ চরমে: চুরি ও নষ্ট হচ্ছে রেলওয়ের মুল্যবান সম্পদ,নতুন বছরে দৃঢ় হোক সম্প্রীতির বন্ধন, দূর হোক সংকট: প্রধানমন্ত্রী. আজ রোববার উদযাপন হবে বই উৎসব. দুর্গম এলাকায় বিকল্প ব্যবস্থায় নতুন বই পাঠানো হবে: শিক্ষামন্ত্রী, নতুন বছরে নতুন শিক্ষাক্রম চালু হচ্ছে : শিক্ষামন্ত্রী, নতুন আশা নিয়ে মধ্যরাতে বরণ করা হবে ২০২৩ সাল, সিডনিতে আতশবাজির মধ্য দিয়ে ‘নিউ ইয়ার’ বরণ, ইংরেজি নববর্ষ উদযাপনে পুলিশের কড়াকড়ি,আবারও প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা, সম্পাদক হলেন শ্যামল ,নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে কুয়াকাটায় পর্যটকের ঢল

রেমিট্যান্স যোদ্ধার পিতার মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষ্যে অসহায় মানুষদের মধ্যে নগদ অর্থ ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৬ মে, ২০২১
  • ২৩৬ বার পঠিত

স্টাফ রিপোটার: মৌলভীবাজারসহ দেশ ব্যাপি করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে অর্থ সংকটে পড়েছে সাধারণ মানুষ। মরণঘাতী ভাইরাসের আতঙ্কে স্তব্ধ হয়ে পড়েছে জীবন। বিশ্বের এমন দুর্যোগকালীন পরিস্থিতিতে মানবিক দিক বিবেচনায় খালেকাবাদ এস্টাবলিশমেন্টের উদ্যোগে দিন মজুর, অসহায় মানুষদের গৃহ নির্মাণ ও পূর্ণ বাসন, খাদ্য সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ করেছেন বাংলাদেশের এক রেমিট্যান্স যোদ্ধা লন্ডন প্রবাসী মোঃ শামীম আহমদ চৌধুরী। তিনি বিশিস্ট সমাজসেবক নাদামপুর নিবাসী আলহাজ্ব ্ আবদুল খালেক চৌধুরীর পুত্র। অপরদিকে, তার নিজের মালিকানাধীন সিলেট রোড খালেকাবাদ (নাদামপুর) সোমিল, রাইছ মিল, খালেকাবাদ সুপার মার্কেট ও খালেকাবাদ কমিউনিটি সেন্টারসহ বিভিন্ন স্থাপনার মালিক। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে লোকজনদের অর্থ সংকটের কথা বিভেচনা করে তার মালিকানাধীন একাধিকবাসাসহ ৯০টি দোকান কোটার ভাড়া মওকুফ করে দিয়েছেন। রেমিট্যান্স যোদ্ধা লন্ডন প্রবাসীর বোন পুত্র কিবরিয়া চৌধুরী এ প্রতিবেদককে বলেন- করোনার মহামারীতে সঙ্কটকালীন মুহুর্তে নিজের কথা চিন্তা না করে সম্পূর্ণ মানবিক দিক চিন্তা করে অসহায় মানুষদের গৃহ নির্মাণ- পূর্ণ বাসন, খাদ্য সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ করা হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, বিত্তবানদের অনুরোধ করবো যেন তারাও মানবিক দিক বিবেচনায় অসহায় লোকজনদের পাশে দাঁড়ান। এই দূর্যোগে এগিয়ে আসুন। জেলার একাধিক লোকজন জানান- প্রবাসীরা দেশের সম্পদ। যারা কষ্ট করে অর্থ প্রেরণ করে আমাদের অর্থনীতিকে গতিশীল রাখতে কাজ করছেন। সেই সব রেমিট্যান্স যোদ্ধা আমাদের অহংকার ও গৌরবের প্রতীক। তাদের ঘিরে আমাদের জীবনে সুখ-দুঃখের গল্প। তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..