1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

মৌলভীবাজারে জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্টের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ৬৩ বার পঠিত

সাম্রাজ্যবাদ-সামন্তবাদ,আমলা-মুৎসুদ্দিপুঁজি বিরোধী সংগ্রামের আপোসহীন ধারা জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট-এনডিএফ এর ৩৬-তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সংগঠনের মৌলভীবাজার জেলা কমিটির উদ্যোগে শহরে লালপতাকা র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। ‘নয়াউপনিবেশিক আধাসামন্তবাদী বাংলাদেশের ভূ-রাজনৈতিক ও রণনৈতিক গুরুত্বের প্রেক্ষিতে মার্কিনের নেতৃত্বে পশ্চিমা সাম্রাজ্যবাদীদের সাথে প্রতিপক্ষ সাম্রাজ্যবাদী চীন ও রাশিয়ার আধিপত্য প্রতিযোগিতা-প্রতিদ্বন্দ্বিতার স্বরূপ উন্মোচন করুন’ এই আহবানে ৫ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় শহরের চৌমুহনাস্থ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের জেলা কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোঃ নুরুল মোহাইমীন।
সভায় বক্তারা বলেন সাম্রাজ্যবাদী উভয়পক্ষই স্বীয় লক্ষ্য অর্জনে বাংলাদেশকে আগ্রাসী যুদ্ধে সম্পৃক্ত করতে নানামূখী তৎপরতা চালাচ্ছে। বিগত সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এই সময়ে একদিকে মার্কিন সমাম্রাজ্যবাদ ও তার পশ্চিমা মিত্ররা এবং বিপরীতে প্রতিপক্ষ চীনা সাম্রাজ্যবাদ ও তার মিত্র সাম্রাজ্যবাদী রাশিয়ার উলঙ্গ তৎপরতা দেশবাসী প্রত্যক্ষ করেছে। মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ তার ক্ষমতা দীর্ঘস্থায়ী করার জন্য নিরাপত্তা সংলাপকে পরিণতিতে নেওয়ার জন্য জেসোমিয়া চুক্তি, আকসা চুক্তি, বঙ্গপোসাগরে তেল-গ্যাস অনুসন্ধান ও উত্তোলনে পিএসসি চুক্তি ইত্যাদি চুক্তি করতে সর্বাত্বক তৎপরতা চালায়। আওয়ামী লীগ সরকার তার মেয়াদের শেষ সময়ে তা না করা এবং পরবর্তী নতুন সরকারের দায়িত্বের কথা বলে চুক্তি না করলেও আশ^াস দিয়ে রাখে। আবার সাম্রাজ্যবাদী চীন মার্কিনসহ পাশ্চত্যের নিষেধাজ্ঞায় বাংলাদেশের পাশে থাকার প্রতিশ্রতি ব্যাক্ত করে। মার্কিন চাপে বাংলাদেশ সরকার যাতে নতি স্বীকার না করে সে জন্য সাম্রাজ্যবাদী রাশিয়া আরব বসন্তের উদহারণ তুলে ধরে সে ধরণের পরিস্থিতি মোকবেলা করার পরামর্শ দিতে কসুর করে না। এভাবে মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ ও তার পশ্চিমা মিত্ররা এবং প্রতিপক্ষ সাম্রাজ্যবাদী চীন ও রশিয়া স্বীয় মূল লক্ষ্য অর্জনে বাংলাদেশকে স্বপক্ষে যুদ্ধে সম্পৃক্ত করার চুক্তিবদ্ধ হওয়ার তৎপরতা অগ্রসর করে। নির্বাচনের প্রাক্কালে রুশ নৌবহরের পূর্বাঞ্চলীয় কমান্ডের ২টি ডেস্ট্রেয়ারসহ ৩টি যুদ্ধ জাহাজের ৫০ বছর পর বাংলাদেশে শুভেচ্ছা সফরে চট্টগ্রাম বন্দরে আগমনও গুরুতপূর্ণ। এ সব ঘটনাবলী প্রমাণ করে যে, বাংলাদেশ দেশ সাম্রাজ্যবাদের নিয়ন্ত্রিত নয়াউপনিবেশিক-আধাসামন্তবাদী, এদেশে জনগণের জাতীয় মুক্তি, স্বাধীনতা ও গণতন্ত্র এখনো অর্জিত হয়নি। একইসাথে জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্টের রাজনীতির অপরিহার্যতা প্রমাণ করে।

এনডিএফ জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক রজত বিশ্বাসের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সহ-সভাপতি মোঃ সোহেল মিয়া, ধ্রুবতারা সাংস্কৃতিক সংসদ মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক অমলেশ শর্ম্মা, রিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি মোঃ গিয়াস মিয়া, হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহিন মিয়া, স’মিল শ্রমিক সংঘের সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান, চা-শ্রমিক সংঘের নেতা কাজল হাজরা প্রমূখ।
আলোচনা সভায় বক্তারা আরও বলেন চাল-ডাল, তেল-লবন-চিনি, মাছ-মাংস, ডিম-দুধ, শাক-সবজিসহ দ্রব্যমূল্যের কষাঘাতে জর্জরিত জনগণের জীবনে নাভিশ্বাস উঠছে। গাড়িভাড়া, বাড়িভাড়া, ঔষধপত্র, চিকিৎসা ব্যয়ের ধারাবাহিক মূল্য বৃদ্ধিতে জনসাধারণের বেঁচে থাকাই দায় হয়ে পড়েছে। জনগণের জীবন-জীবিকার সকল প্রয়োজনীয় বিষয় রাষ্ট্রীয় ও দলীয় ব্যবসায়ীদের অবাধ লুটপাট ও লাগামহীন বাণিজ্যক্ষেত্রে পরিণত করেছে। জীবনযাত্রার প্রতিটি ক্ষেত্রেই লাগামহীন মূল্য বৃদ্ধি ঘটলেও শ্রমিক-কৃষক-জনগণের আয় বাড়েনি। সরকার জনজীবনের সমস্যাকে উপেক্ষা করে উন্নয়নের যে গালভরা বুলি আওড়াচ্ছে তা মূলত সাম্রাজ্যবাদী লগ্নিপুঁজির সর্বোচ্চ মুনাফার লক্ষ্যে সড়ক, রেল, নৌপথসহ অবকাঠামো নির্মাণে বিনিয়োগ আর সর্বোচ্চ লুটপাট ছাড়া আর কিছুই নয়। সাম্রাজ্যবাদী ঋণনির্ভর এই সকল তথাকথিত উন্নয়নের সুদাসল পরিশোধে বাজেটের মূল অর্থ ব্যয় হয়। সাম্রাজ্যবাদী ঋণনির্ভর এই সকল প্রকল্পের ঋণ পরিশোধে আগামী ২০২৪-২৫ সালের মধ্যে অর্থনীতিতে ‘লালবাতি’ জ্বলার বিপদের কথা বিভিন্নভাবে আলোচিত হচ্ছে। সভায় বক্তারা জাতীয় ও জনজীবনের সংকটের জন্য সাম্রাজ্যবাদ ও তার এদেশীয় দালালদের দায়ী করে সকল সাম্রাজ্যবাদ ও তার দালালদের বিরুদ্ধে সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী গণতান্ত্রিক শক্তির ঐক্যবদ্ধ সংগ্রাম গড়ে তোলার আহবান জানিয়ে আরও বলেন বাংলাদেশ একটি নয়াউপনিবেশিক আধাসামন্ততান্ত্রিক দেশ। এদেশের শাসন ক্ষমতায় এযাবত যারা অধিষ্ঠিত হয়েছে তারা সকলেই কোন না কোন সাম্রাজ্যবাদের দালাল সরকার। বিশ্বরাজনীতির পট পরিবর্তনের এই সময়ে নয়াউপনিবেশিক দেশগুলোতে যেমন দালালদের সাম্রাজ্যবাদী প্রভূ পরিবর্তনের দিকটি সামনে আসছে তেমনি আমাদের দেশেও এমনটা হওয়ার সম্ভবনা থাকছে। তাই এক সাম্রাজ্যবাদের পরিবর্তে আরেক সাম্রাজ্যবাদ নয়, এক দালালের পরিবর্তে আরেক দালাল নয়, সকল সাম্রাজ্যবাদ ও তার দালালদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম তীব্রতর করে শ্রমিক-কৃষক-জনগণের রাষ্ট্র, সরকার ও সংবিধান প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে জনগণ ও জাতীয় জীবনের জরুরী দাবি-দাওয়া নিয়ে দূর্বার আন্দোলন-সংগ্রাম গড়ে তুলতে হবে। – প্রেস বিজ্ঞপ্তি

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..