1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৪০ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

বাংলাদেশের চায়ে সংযুক্ত হলো হানি গ্রিন টি, মাছা গ্রিন টি, লেমন গ্রিন টি ও আলগ্রে টি

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন, ২০২১
  • ২৬০ বার পঠিত

বিকুল চক্রবর্তী: মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের চা নিলাম কেন্দ্রে মৌসুমের প্রথম চা উঠেছে। তার সাথে সংযুক্ত হয়েছে বিশেষ চার ধরেণের চা হানি গ্রীণটি, মাছা গ্রীণটি, লেমন গ্রীণটি ও লন্ডনের বিখ্যাত চা আলগ্রে। বুধবার সকাল থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত পরিচালিত এ অকশনে সর্বোচ্চ ৩ হাজার ১শত টাকায় বিক্রিহয় হানি ফ্লেভার গ্রীণটি। ২ হাজার ৪শত ২০ টাকায় বিক্রি হয় লেমন গ্রীণটি, মাছা টি বিক্রি হয় ১ হাজার ৫শত টাকা ও আলগ্রে বিক্রি হয় ১হাজার ২শত টাকা কেজি দরে। একই সাথে সর্বনিন্ম বø্যাকটি বিক্রি হয় ১শত ৪৫ টাকা কেজি দরে।
শ্রীমঙ্গল ব্রোকাস লিমিটেডের পরিচালক হেলাল চৌধুরী জানান, দেশের দ্বিতীয় চা নিলাম কেন্দ্র মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে ২০২১-২২ অর্থ বছরের ৪র্থ চায়ের নিলাম অনুষ্ঠিত হয়েছে। যেখানে মৌসুমের প্রথম চা উঠে। এর মধ্যে আর্কশন ছিলো মৌলভীবাজার বড়লেখার শাহবাজপুর চা বাগানের বিশেষ ৪টি চা।
শ্রীমঙ্গল শহরের মৌলভীবাজার রোডস্থ খান টাওয়ারের দ্বিতীয় তলায় অনুষ্ঠিত এ নিলাম কেন্দ্রের শ্রীমঙ্গল টি বোকার্স, রূপশী বাংলা টি বোকার্স এবং জালালাবাদ টি বোকার্স এর মাধ্যমে ২০টি চা বাগানের ৩৪৮ লটের মাধ্যমে মোট ১লক্ষ ৪০ হাজার কেজি চা নিলামে তোলা হয়। যার মধ্যে প্রায় ১ লক্ষ কেজি বিক্রি হয়।
শ্রীমঙ্গল টি প্ল্যান্টার অ্যান্ড ট্রেডার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক শিক্ষক জহর তরপদার জানান, এবারেও বরাবরের মতো শ্রীমঙ্গল টি বোকার্স এর মাধ্যমে নিলামে নতুন জাতের ৪টি চা তোলা হয়েছে। যা এ নিলামের প্রধান আর্কশন ছিলো। তিনি জানান উৎপাদন বেশি হওয়ায় আগের নিলামের চেয়ে চা বেশি উঠেছে।
বাংলাদেশে নতুন আবিস্কৃত এ চা উৎপাদকারী শাহবাজপুর চা বাগানের ব্যবস্থাপক মো: রাশেদুল ইসলাম বলেন, সৌখিন চা পায়ীদের জন্য তারা বিশেষ এ ৪ প্রকারের চা তৈরী করেন। এর মধ্যে একটি হলো হানি গ্রীণটি। যেটি বিটিটু চায়ের একটি পাতা ও কুঁড়ির সাথে ন্যাচারাল মধু মিশিয়ে তৈরী করা হয়েছে। এটি পান করলে মধু ও চা দুটি ফ্লেভার পাওয়া যায়। পাশা পাশি এটিতে আলাধা করে মিষ্টি দেয়ার প্রয়োজন হবে না। একই সাথে লেবুর সাথে মিশিয়ে লেমন গ্রীণটি এবং জাপানের বিখ্যাত চা মাছা গ্রীণটিও তারা তৈরী করেছেন। এটি পাউডার করা। গরম পানিতে মিশিয়ে হরলিক্স এর মতো এটি পান করা যায়। অপরটি হলো লন্ডনের জনপ্রিয় আলগ্রে টি। যা ইংলেন্ডের সুগন্ধি ফুল ক্যামমিল এর ফ্লেবারের সাথে বিটিটুর সংমিশ্রনে তৈরী করা হয়েছে। ইংল্যান্ড থেকে এই ফ্লেভার নিয়ে এসে তারা এটি তৈরী করেছেন। তিনি জানান, জাপানি ও ইংল্যান্ডের মানুষ যখন বাংলাদেশে আসেন তখন তারা এই চা পেয়ে খুশি হবেন। পাশাপাশি দেশের মানুষকে নতুনত্ব উপহার দেয়াও তাদের প্রয়াস।
শ্রীমঙ্গল অকশন থেকে শহরের হবিগঞ্জ রোডের চা ব্যবসায়ী আলমগীর টি হাউসের স্বত্তাধিকারী আলমগীর হোসেন ৩ হাজার ১শত টাকা কেজি দলে ক্রয় করেন হানি টি এবং মাছা, লেমন ও আলগ্রে ক্রয় করে এশিয়ানটি।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..