1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১২:০০ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে স্টেশনে ‘মাতৃদুগ্ধ প্রদান কক্ষ’ উদ্বোধন

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২১ আগস্ট, ২০২১
  • ২০৩ বার পঠিত

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি :: শ্রীমঙ্গলে ‘অভিযাত্রী সংগঠনের উদ্যোগে ‘মাতৃদুগ্ধ প্রদান কক্ষ’ উদ্বোধন করা হয়েছে। শনিবার (২১ আগস্ট) দুপুরে শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে স্টেশন কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় স্টেশন প্লাটফর্মে উদ্বোধন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

সংগঠনের সভাপতি মোত্তাকিন আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার নজরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে থানা অফিসার ইনচার্জ জয়নুল আবেদীন, শ্রীমঙ্গল সহকারী স্টেশন মাস্টার মো. সাখওয়াত হোসেন।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, অভিযাত্রী সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সত্যকাম ভট্রাচার্য্য, কোষাধ্যক্ষ সৈয়দ মুক্তাকিন বিল্লাহ, সাধারণ সদস্য রাসেল আহমেদ প্রমুখ।

অভিযাত্রীর সভাপতি মোত্তাকিন আহমদ বলেন, অভিযাত্রী শ্রীমঙ্গল একটি সমাজসেবা মূলক সংগঠন। ২০১২ সাল থেকে এর যাত্রা শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত অনেকগুলো ভিন্নধর্মী কাজ করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতা এই মাতৃদুগ্ধ প্রদান কক্ষ। অনেক সময় দূর-দূরান্তে যাত্রার পথে মায়েদেরকে বাচ্চাদের বুকের দুধ পান করাতে হয়। কিন্তু কোন নির্দিষ্ট সংরক্ষিত জায়গা না থাকায় তারা অনেক সময়ই বাচ্চাদের বুকের দুধ পান করাতে পারেন না। তা যেমন তাদের জন্য কষ্টের একই সাথে বাচ্চাদের জন্যেও কষ্টকর। এই কক্ষটি সাধারণ হলেও এর উপকারভোগীর সংখ্যা অনেক হবে। এটিই আমাদের অর্জন এবং তৃপ্তি।

অভিযাত্রী শ্রীমঙ্গলের অন্যতম সদস্য সৈয়দ মোত্তাকিন বিল্লাহ জানান, রেলওয়ে স্টেশনে প্রতিদিন অসংখ্য সেবা প্রার্থী যাত্রী ও জনসাধারণ আসে, যাদের একাংশ হচ্ছে মা ও শিশু। ‘মা’ ও ‘শিশু’ এই অর্থে যে স্টেশনে এসে অনেক মায়েরাই বাচ্চাকে দুধ খাওয়ানোর সুনির্দিষ্ট জায়গা খুঁজে পান না। কখনো বারান্দায়, কখনো প্লাটফর্মে বসে, কখনো স্টেশনের বাহিরে রাস্তায় দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে কখনো বা আধা বসা অবস্থাতেই শিশুকে দুধ খাইয়ে থাকেন। কোন একদিন রেলওয়ে স্টেশনে গাড়ি আসার অপেক্ষার বসে বিষয়টি নজরে আসায় পরবর্তীতে পরিকল্পনা করা হয় রেলওয়ে স্টেশনে একটি সুসজ্জিত ‘মাতৃদুগ্ধ সেবন কক্ষ’ নির্মাণ করা হবে অসহায় এসব মা ও শিশুর জন্য।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..