1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

রাশিয়ার ভূমিতে হামলার ইচ্ছা নেই : ইউক্রেন

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২ জুন, ২০২২
  • ১৩৮ বার পঠিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনকে ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে পরিস্থিতি উত্তপ্ত করছে বলে অভিযোগ করেছে রাশিয়া। এই অস্ত্র দিয়ে ইউক্রেন রাশিয়ায় হামলা চালাতে পারে বলেও মনে করছে তারা। তবে এ বিষয়ে স্পষ্ট জানিয়ে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, রাশিয়ার ভূমিতে হামলা করতে ইউক্রেন আগ্রহী নয়।

নিউজম্যাক্সকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জেলেনস্কি বলেন, এসব অস্ত্র শুধু নিজেদের ভূমি থেকে আক্রমণকারী বাহিনীকে তাড়ানোর উদ্দেশ্যে ব্যবহার করতে চায় ইউক্রেন। খবর ফোবর্সের

যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনকে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র সহায়তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর জেলেনস্কির এই ঘোষণা সামনে এলো।

জেলেনস্কি জোর দিয়ে বলেন, ওই অস্ত্র শুধুমাত্র আত্মরক্ষার জন্য ব্যবহার করা হবে। রাশিয়ান ফেডারেশনের ব্যাপারে আমরা একদমই আগ্রহী নই। রাশিয়া যেমন আমাদের ভূখণ্ড দখলে লড়াই করছে, আমরা তেমন তাদের ভূখণ্ডের জন্য লড়ছি না।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ইউক্রেনকে দূরপাল্লার উন্নত প্রযুক্তির ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা দিতে সম্মত হয়েছেন। আরও অস্ত্র দুপক্ষের মধ্যে সমতা নিয়ে আসবে এবং যুদ্ধ শেষে কূটনৈতিক সমাধান আসবে। কিন্তু রাশিয়ার অভ্যন্তরে লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালানোর জন্য এই অস্ত্র ব্যবহার করা হবে না এমন আশ্বাস পাওয়ার পরই যুক্তরাষ্ট্র নির্ভুল লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম ওই ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহ করতে সম্মত হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পাঠানো ওই ক্ষেপণাস্ত্র ৭০ কিলোমিটার (৪৫ মাইল) পর্যন্ত লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম বলে এক প্রতিবেদনে জানায় বিবিসি।

যুক্তরাষ্ট্রের অস্ত্র পাঠানোর ঘোষণা দেয়ার পর রাশিয়া অভিযোগ করেছে যে ইউক্রেনে যুদ্ধকে দীর্ঘায়িত করতে চাইছে যুক্তরাষ্ট্র। ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ইচ্ছাকৃতভাবেই উত্তেজনা বাড়াচ্ছে। এ ধরনের সরবরাহ শান্তি আলোচনায় ইউক্রেনের নেতাদের ফিরে আসার ক্ষেত্রে কোন ভূমিকা রাখবে না।

রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভও যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনা করে বলেছেন, বাইডেনের ঘোষণা তৃতীয় কোন দেশের ইউক্রেন সংঘাতে জড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি তৈরি করেছে।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..