1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
  3. admin@mkantho.com : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:৫৯ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
মৌলভীবাজারের ৫টি রেলওয়ে স্টেশন বন্ধ থাকায় এখন ভুতুরে বাড়ি: যাত্রী দুর্ভোগ চরমে: চুরি ও নষ্ট হচ্ছে রেলওয়ের মুল্যবান সম্পদ,নতুন বছরে দৃঢ় হোক সম্প্রীতির বন্ধন, দূর হোক সংকট: প্রধানমন্ত্রী. আজ রোববার উদযাপন হবে বই উৎসব. দুর্গম এলাকায় বিকল্প ব্যবস্থায় নতুন বই পাঠানো হবে: শিক্ষামন্ত্রী, নতুন বছরে নতুন শিক্ষাক্রম চালু হচ্ছে : শিক্ষামন্ত্রী, নতুন আশা নিয়ে মধ্যরাতে বরণ করা হবে ২০২৩ সাল, সিডনিতে আতশবাজির মধ্য দিয়ে ‘নিউ ইয়ার’ বরণ, ইংরেজি নববর্ষ উদযাপনে পুলিশের কড়াকড়ি,আবারও প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা, সম্পাদক হলেন শ্যামল ,নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে কুয়াকাটায় পর্যটকের ঢল

শ্রীমঙ্গলে ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজে জনসাধারনের চলাচল

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৩ জুন, ২০২১
  • ২১৪ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার : মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে ছড়ার উপরে তৈরী একটি ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ দিয়ে চলাচল করছেন কয়েক গ্রামের হাজারো মানুষ। ভাঙ্গাচোড়া ব্রীজের মাঝখান দেবে যাওয়ায় চলাচলের অনপোযোগী ব্রিজটি দিয়েই গ্রামের মানুষ ও যানবাহন চলাচল করছে। ব্রিজটিতে জন চলাচল অনপোযোগী ঘোষনা করা না হলে বড় ধরনের দূর্ঘটনার আশংকা করছেন স্থানীয়রা।

উপজেলার ভুনবীর ইউনিয়নের শ্রীমঙ্গল – মির্জাপুর সড়কের পাশের বাদ আলিসারকুল যাওয়ার রাস্তায় দেখা গেছে ঝুঁকিপূর্ণ এই ব্রিজটি।
রোববার সরেজমিনে বাদ আলিসারকুল এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, ভাঙ্গাচোড়া অবস্থায় ছড়ার উপর পড়ে রয়েছে ব্রিজটি। ব্রিজটির মাঝ বরাবর একটি বড় অংশ দেবে গেছে। দুই পাশের পিলার ভেঙ্গে গিয়ে ঝুলে আছে। উপরে নিরাপত্তা দেয়াল ভেঙ্গে রড বেড়িয়ে এসেছে। এই অবস্থায় লোকজন ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় ব্রিজের উপর দিয়ে প্রাইভেট কার, সিএনজি চালিত অটো রিকশা, পিআপ ভ্যান চলাচল করতে দেখা গেছে। স্থানীয় লোকজন ছাড়াও প্রতিদিন কয়েক গ্রামের হাজার হাজার মানুষ হাইল হাওরে যাতায়াত করেন।

স্থানীয় বাসিন্দা কাওসার আহমেদ বলেন, শ্রীমঙ্গল- মির্জাপুর সড়কের পাশের এই সড়কটি দিয়ে প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষ চলাচল করে। এখানে অনেকগুলো হাঁস ও মাছের খামার রয়েছে। কৃষি কাজ ও হাওরে যাওয়ার জন্য মানুষ এই সড়কের এই ব্রিজটি দিয়ে চলাচল করেন। ব্রিজটি প্রায় ৭-৮ বছর ধরে এভাবে নড়বড় অবস্থায় থাকলের মেরামতে কোন উদ্যেগ নেইনি কেই । বৃষ্টির সময় এখানে ছড়ার পানি বেড়ে গেলে ব্রীজটি নড়াচড়া করে। মানুষ ভয়ে ব্রিজে উঠে না।

পাশে বাদে আলিসা গ্রামে প্রায় ৪ হাজার মানুষের বাস। ভারি যানবাহন চলাচল করতে না পারায় গ্রামের মানুষ তাদের উৎপাদিত কৃষি পন্য ও খামারের জিনিসপত্র বহন করতে চরম দুর্ভোগে পড়েন।

সিএনজি চালিত অটো রিকশা চালক সুমন মিয়া বলেন, ব্রিজটির উপরে সিএনজি নিয়ে উঠলে মনে হয় যে কোন সময় ভেঙ্গে পড়বে। আমরা ঝুঁকি মুখে বাধ্য হয়ে চলাচল করে আসছি।

ভুনবীর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রশীদ বলেন, এটি অনেক দিন ধরেই এভাবে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। এর মধ্যেই এলাকার মানুষ যান বাহন চলাচল করছে।

তিনি বলেন, ইউনিয়নের বরাদ্ধ কম। তা দিয়ে ব্রিজ করা সম্ভব নয়। এখানকার জনগনের কথা চিন্তা করে এখানে একটি টেকসই ব্রিজ তৈরী করে দেওয়ার জন্য উপজেলা পরিষদ ও প্রশাসনকে অনুরোধ জানান তিনি।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) প্রেমসাগর হাজরা বলেন, সরকার গ্রামের প্রত্যন্ত এলাকায় অনেক উন্নয়ন করছে। এ মাসের উপজেলার মাসিক সভায় বিষয়টি তুলে ধরা হবে। ব্রীজ তৈরীর জন্য প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..