1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

সাকিবের বিষয়ে অবশেষে মুখ খুলল কেকেআর

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৩৫৫ বার পঠিত

অনলাইন ডেস্ক: অনেকটা ঢাকঢোল পিটিয়েই সাকিবকে এ মৌসুমে দলে নিয়েছিল কলকাতা নাইট রাইডার্স (কেকেআর)। মাঝে হায়দ্রাবাদে গেলেও দলটিতে তিনি আগেও খেলেছেন। তবে আইপিএলের চলতি আসরের শুরুতে তিনটি ম্যাচে সুযোগ পেলেও এরপর আর একদশে সুযোগ পাচ্ছেন না সাকিব আল হাসান। যা নিয়ে নানা আলোচনা-সমালোচনার পর অবশেষে মুখ খুলল কেকেআর কর্তৃপক্ষ। তারা জানিয়েছে, টাইগার অলরাউন্ডার একাদশে সুযোগ পাচ্ছেন না মূলত টিম কম্বিনেশনের কারণে। যেহেতু একাদশে চারজনের বেশি বিদেশি রাখার সুযোগ নেই, সেহেতু তাদের মধ্যে একজন অধিনায়ক ইয়ন মরগান ফর্মে না থাকলেও খেলছেন নিয়মিতই। দলের অপর দুই অপরিহার্য অলরাউন্ডারও বিদেশি- আন্দ্রে রাসেল ও সুনীল নারাইন। আর একজন পেসার হিসেবে খেলছেন ফর্মে থাকা লকি ফার্গুসন।

এর মধ্যে চেন্নাইয়ের বিপক্ষে ম্যাচেই চোটে পড়ে ছিটকে যান রাসেল। যে কারণে একাদশে সাকিবের সুযোগ পাওয়াটা নিশ্চিত ছিল অনেকেটাই।তবে যথারীতি দিল্লীর বিপক্ষে ম্যাচেও একাদশে জায়গা হয়নি সাকিবের। শারজায় স্পিন বান্ধব পিচেও কেন সাকিব নেই, এ নিয়ে ধারাভাষ্যকারের প্রশ্নের জবাবে ম্যাচ চলাকালেই মুখ খুলেছেন কলকাতার সহকারী কোচ অভিষেক নায়ার।

নায়ার বলেন, ‘আমরা বিষয়টা নিয়ে কথা বলেছি। শারজাহ ছোট একটি মাঠ। অধিনায়কের মনে হয়েছে, তিন স্পিনার নিয়ে খেলা কঠিন হতে পারে। রাসেল না থাকায় তাই আমাদের বাড়তি একজন পেসার নিতে হয়েছে। এজন্য সাউদিকে দলে নেয়া হয়েছে। এ ম্যাচে কলকাতার একাদশে আছেন দুই স্পিনার- সুনীল নারাইন ও বরুণ চক্রবর্তী। সাকিব ব্রাত্য থাকলেও তার সামর্থ্য নিয়ে অবশ্য কোনো সন্দেহ নেই কলকাতার। অভিষেক বলেন, ‘সে পরীক্ষিত একজন খেলোয়াড়। এমন কন্ডিশনে সবসময় ভালো করেছে। তবে পাওয়ার-প্লের কথা মাথায় রেখে আমরা বাড়তি পেসার খেলাতে চেয়েছি।’

এদিকে, ম্যাচে দিল্লিকে ৩ উইকেটে হারিয়ে প্লে-অফের রেসে টিকে থাকলো কেকেআর। চেন্নাইয়ের কাছে হারার পর আগের দুই ম্যাচের সেই ভয়ঙ্কর নাইটদের দেখা মেলেনি মঙ্গলবার। তবুও প্রথমে ব্যাট করা দিল্লিকে ১২৭ রানে আটকে দেয়ার পথে দুটি করে উইকেট নিয়েছেন লকি ফার্গুসন, সুনীল নারাইন ও ভেঙ্কটেশ আইয়ের। পরে ১২৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়েও শেষ পর্যন্ত নিতিশ রানার ২৭ বলে অপরাজিত ৩৬ রানের ওপর ভর করে ১০ বল হাতে রেখে ৭ উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয় কলকাতা।

তবে ৪ ওভারে মাত্র ১৮ রান দিয়ে ২ উইকেট নেয়ার পর ব্যাট হাতে নেমে ১০ বলে ২১ রান করে ম্যাচ সেরা হয়েছেন সুনীল নারাইন।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..