1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ০২:০৪ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

খালের সীমায় থাকা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ হবে : তাজুল ইসলাম

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ৪০০ বার পঠিত

ডেস্ক রিপোর্ট : রাজধানীতে খালের সীমানা নির্ধারণের পর এর ভেতরে থাকা সব ধরনের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

আজ বুধবার সকালে রাজধানীর কল্যাণপুরে রিটেনশন পন্ড এলাকায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) অধীন ২৯টি খাল ও একটি রেগুলেটরি পন্ডের সীমানা নির্ধারণকাজের উদ্বোধন করে তিনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ঢাকা শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনে কল্যাণপুরে সরকার ১৭৩ একর জায়গা অধিগ্রহণ করেছে ওয়াটার রিটেনশন পন্ড নির্মাণে, কিন্তু তিন একর ছাড়া বাকি জমি দখল হয়েছে। বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণ করা হয়েছে।

দখলদারদের ছাড় দেয়া হবে না জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, সীমানা নির্ধারণ করার পর এর ভেতর থাকা সব স্থাপনা উদ্ধার করে পানির প্রবাহ ঠিক করা হবে।

তাজুল বলেন, সব জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা এবং সাধারণ মানুষকে সঙ্গে নিয়ে কাজ করতে হবে। ইতোমধ্যে রামচন্দ্রপুরসহ অনেকগুলো খাল দখলমুক্ত করা হয়েছে। প্রশাসনের সহযোগিতায় জনপ্রতিনিধিরা সাধারণ মানুষকে সম্পৃক্ত করে বিভিন্ন অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছেন। সাধারণ মানুষ পাশে থাকলে যে কোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা সম্ভব।

উচ্ছেদ অভিযান চলছে জানিয়ে তিনি বলেন, অনেক খাল উদ্ধার করা হয়েছে। রাজধানীকে একটি বাসযোগ্য ও দৃষ্টিনন্দন শহর হিসেবে গড়তে মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় দুই সিটি করপোরেশনের মেয়র নিরলসভাবে অনেক চ্যালেঞ্জিং কাজ করছেন।

ঢাকা ওয়াসার কাছ থেকে খালগুলো দুই সিটি করপোরেশনে হস্তান্তরের পর তা দখলমুক্ত এবং অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু করায় দুই মেয়রের প্রশংসা করেন মন্ত্রী।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, অতীতের ব্যর্থতা ও সফলতার বিচার-বিশ্লেষণ না করে সামনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে। ঢাকার ঐতিহ্য ফিরে আনতে হলে জনগণের সমর্থন প্রয়োজন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির কর্মকর্তা, প্রকল্প সংশ্লিষ্ট বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা, ওয়ার্ড কাউন্সিলরসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

 

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..