1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
  • E-paper
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ১১:৩৯ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
 করোনা আপডেট :   করোনায় আরও ৪৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৩২২

ভারত থেকে প্রতিদিন ঢুকছেন ৪০০ ট্রাকের ড্রাইভার-হেলপার

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৭ এপ্রিল, ২০২১
  • ৩৬ বার পঠিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ নেওয়ায় চরম ঝুঁকিতে রয়েছে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর। এই স্থলবন্দর দিয়ে প্রতিদিন প্রায় ৪০০ ভারতীয় ট্রাক ড্রাইভার ও হেলপার প্রবেশ করায় বাংলাদেশেও করোনার বহুল আলোচিত ভারতীয় ধরনটি ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

হিলি স্থলবন্দর সূত্র ও স্থানীয়রা জানান, ভারত থেকে প্রতিদিন পণ্যবাহী ১৮০ থেকে ২০০টি ট্রাক হিলি স্থলবন্দর দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে। এসব ট্রাকের সঙ্গে ভারতীয় এক জন ড্রাইভার ও এক জন হেলপার থাকেন। তারা পণ্য খালাস না হওয়া পর্যন্ত দুই-তিন দিন বন্দর এলাকায় অবস্থান করেন। কাজের কারণেই এসব ট্রাক ড্রাইভার ও হেলপারের সঙ্গে মিশতে হচ্ছে, কথা বলতে হচ্ছে বাংলাদেশি শ্রমিক ও বন্দর সংশ্লিষ্টদের। এ কারণেই স্থলবন্দরের কর্মী ও স্থানীয়দের মধ্যে এক ধরনের ভয় কাজ করছে।

হিলি স্থলবন্দরের বেসরকারি অপারেটর পানামা পোর্ট লিংক লিমিটেডের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন মল্লিক জানান, ভারত থেকে বন্দরে ট্রাক প্রবেশের সময় ড্রাইভার ও হেলপারদের থার্মাল স্ক্যানার দিয়ে তাপমাত্রা পরীক্ষা করা হয়। পণ্যবাহী ট্রাকগুলোতে জীবাণুনাশক স্প্রে করা হয়। এর পরও এরা বাংলাদেশ দুই-তিন দিন অবস্থান করায় স্বাস্থ্যঝুঁকি রয়েছে বলে স্বীকার করেন তিনি। তিনি বলেন, স্বাস্থ্যঝুঁকি মেনেই সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী দেশের পণ্য সরবরাহ স্বাভাবিক রাখার জন্য আমদানি-রপ্তানি চালু রাখা হয়েছে।

দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল কুদ্দুছ বলেন, ভারতে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ নেওয়ায় ভারতীয় ট্রাক ড্রাইভার ও হেলপাররা বাংলাদেশের জন্য এই মুহূর্তে নিরাপদ নন। বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যেই আলোচনা শুরু হয়েছে। এদিকে ভারতে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ভয়াবহ রূপ নেওয়ায় হাকিমপুর পৌরবাসী ও সারা দেশের মানুষের স্বাস্থ্যঝুঁকির কথা ভেবে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে সাময়িকভাবে আমদানি-রপ্তানি বন্ধের জন্য দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের কাছে প্রস্তাব দিয়েছেন হাকিমপুর পৌরসভার মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত। গত রবিবার দুপুরে দিনাজপুর জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকিরের সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল জেলা সমন্বয় সভায় যোগ দিয়ে এ প্রস্তাবনা দেন হাকিমপুর পৌর মেয়র।

দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকি হাকিমপুর পৌর মেয়রের প্রস্তাবনার কথা স্বীকার করে সাংবাদিকদের জানান, আমদানি-রপ্তানির বিষয়টি মন্ত্রণালয়ের ব্যাপার। ভারতের পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় দ্রুত এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, এ বিষয়ে ইতিমধ্যে হাকিমপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে। মন্ত্রণালয় থেকে সিদ্ধান্ত এলেই তা দ্রুত কার্যকর করা হবে। হাকিমপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ নুর-এ আলম বলেন, এই প্রস্তাবটি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে যাওয়ার পর সরকারি যে কোনো নির্দেশনা এলে আমরা সেটা বাস্তবায়ন করব।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..