1. [email protected] : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. [email protected] : admi2017 :
  3. [email protected] : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ০৬:০৬ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
বিনোদন :: গান গাইতে গাইতে মঞ্চেই গায়কের মর্মান্তিক মৃত্যু!,  খেলার খবর : অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ, বিমানবন্দরে যুবাদের জানানো হবে উষ্ণ অভ্যর্থনা,

৭ ঘণ্টা পর শিমুলিয়া-মাঝিকান্দি রুটে ফেরি চলাচল শুরু

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২০ জুন, ২০২২
  • ১৫১ বার পঠিত

ডেস্ক রিপোর্ট : পদ্মায় তীব্র স্রোতের কারণে ৭ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর ভোর পাঁচটা থেকে মাঝিরঘাট-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে। নদীর স্রোত কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসায় আজ সোমবার সকাল থেকে সীমিত পরিসরে এই রুটে পুনরায় যানবাহন পারাপার শুরু হয়েছে। মাঝিরঘাট ফেরিঘাটের ব্যবস্থাপক মো. সালাউদ্দিন আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সালাউদ্দিন আহমেদ জানান, গত এক সপ্তাহ যাবৎ পদ্মায় পানি বাড়ছে। এতে নদীতে তীব্র স্রোতের সৃষ্টি হয়েছে। এ ছাড়া পানির চাপে নদীর তলদেশে ঘুর্ণন সৃষ্টি হয়েছে। স্রোতের বিপরীতে ফেরি চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ। বিশেষ করে রাতে ফেরি নিয়ন্ত্রণ করা খুবই কষ্টকর হয়ে পড়ে। যাত্রীদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনায় নিয়ে গত রাত পৌনে দশটায় ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়। ঘাটে অপেক্ষমাণ যানবাহনকে বিকল্প সড়ক হিসেবে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথ ব্যবহার করতে অনুরোধ করা হয়।

ফেরিঘাটের ব্যবস্থাপক বলেন, সকালে স্রোত কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসায় দিনের আলোয় ফেরি চালানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ভোর ৫টায় শিমুলিয়া থেকে ফেরি কুঞ্জলতা লোড করে মাঝিরঘাটের উদ্দেশে ছেড়ে আসে। সকাল ৬টার দিকে ফেরিটি মাঝিরঘাটে নোঙর করে। বর্তমানে এই ঘাটে থাকা ৭টি ফেরিতে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে।

এদিকে দীর্ঘ সময় ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় মাঝিরঘাটে আটকা পড়েছে ২ শতাধিক যাত্রী ও পণ্যবাহী যানবাহন। ১ নম্বর ঘাটের পন্টুনের সামনে থেকে শরীয়তপুর-মাঝিরঘাট সড়কে প্রায় দেড় কিলোমিটার তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। রাতে ফেরি চলাচল বন্ধের ঘোষণায় ব্যক্তিগত যানবাহনের অধিকাংশ চালকেরা বিকল্প সড়কে চলে গেলেও রাতভর অপেক্ষা করতে দেখা গেছে পণ্যবাহী যানবাহনকে। রাতে বৃষ্টিতে ভিজে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে আটকে পড়া যানবাহনের চালক ও যাত্রীদের।

বরিশাল থেকে ঢাকা যাওয়ার পথে পরিবারসহ মাঝিরঘাটে আটকা পড়া ইলিয়াস ঢালী বলেন, ‘গতকাল বিকেলে ঘাটে এসেছি। রাতে কোনো পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই হঠাৎ ফেরি বন্ধ করে দেওয়া হয়। ওই রাতে পরিবার নিয়ে অন্য রুটে যাওয়ার সাহস পাইনি। সারা রাত রাস্তায় অপেক্ষায় থেকেছি। সকালে ফেরি চলাচল শুরু হলে ফেরিতে ওঠার সিরিয়াল পেয়েছি। সারা রাত পরিবার নিয়ে অনেক কষ্ট পোহাতে হয়েছে।’

শরীয়তপুরের গোসাইরহাট থেকে মাছ নিয়ে আটকা পড়া আকতার হোসেন বলেন, ‘সন্ধ্যায় ঘাটে আইয়া দেহি অনেক যানজট। তর ওপর রাইতে ফেরি বন্ধ কইরা রাখছিল। আগে জানলে এইহান দিয়া আইতাম না। সকালতোন আবার ফেরি চলতাছে। যেই যানজট তৈরি অইছে তাতে কখন সিরিয়াল পাই কইতে পারি না। তাড়াতাড়ি পার হইতে না পারলে মাছ সব নষ্ট হইয়া যাইব।’

সকালে মাঝিরঘাটে দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট মেহেদী হাসান বলেন, ‘রাতে ফেরি বন্ধ থাকায় দীর্ঘ সড়ক জুড়ে যানবাহনের লাইন তৈরি হয়েছে। রাতে অনেক গাড়ি বিকল্প সড়কে চলে গেছে। ফেরি চলাচল স্বাভাবিক থাকলে দুপুরের মধ্যে ঘাট পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসবে।’

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..