1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
  3. admin@mkantho.com : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:২৫ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
* বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শনে সিলেটে প্রধানমন্ত্রী   *  বন্যা নিয়ে দুশ্চিন্তার কিছু নেই, সরকার সব ব্যবস্থা নিয়েছে : প্রধানমন্ত্রী

রায়োর কাছে পয়েন্ট খুইয়ে মৌসুম শুরু বার্সার

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৪ আগস্ট, ২০২২
  • ২৭ বার পঠিত

ডেস্ক রিপোর্ট : ম্যাচের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত বলের নিয়ন্ত্রণ রেখে আক্রমণের বন্যা বইয়ে দিল নতুন চেহারার বার্সেলোনা। কিন্তু তাদের তারকা ফরোয়ার্ডরা পারলেন না রায়ো ভায়েকানোর রক্ষণদেয়াল চূর্ণ করতে। তুলনামূলক দুর্বল দলটির গোলরক্ষক স্তোল দিমিত্রিয়েভস্কি উপহার দিলেন দারুণ সব সেভ। তার বীরত্বের কাছে পরাস্ত হয়ে ২০২২-২৩ মৌসুমের স্প্যানিশ লা লিগায় নিজেদের প্রথম ম্যাচে পয়েন্ট খোয়াল কাতালানরা।

শনিবার রাতে ঘরের মাঠ ক্যাম্প ন্যুতে গোলমুখে ২১টি শট নিয়েও রায়োর সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছে জাভির শিষ্যরা। ফলে লা লিগার শিরোপা পুনরুদ্ধারের অভিযানে প্রত্যাশিত শুরু পেল না তারা। পুরো ১১ জন নিয়েও খেলা শেষ করতে পারেনি ক্লাবটি। দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন তাদের অধিনায়ক সার্জিও বুসকেতস।

সব মিলিয়ে তিনবার বল জালে ঢোকে। কিন্তু অফসাইডের কারণে দুবার বার্সাকে ও একবার রায়োকে আক্ষেপে পুড়তে হয়। এমনকি ম্যাচের অধিকাংশ সময় রক্ষণ জমাট রাখতে হলেও রায়োর সামনে সুযোগ এসেছিল পূর্ণ তিন পয়েন্ট ছিনিয়ে নেওয়ার।

আর্থিক জটিলতায় চলমান গ্রীষ্মকালীন দলবদলে স্বাক্ষর করা ও চুক্তি নবায়ন করা খেলোয়াড়দের নিবন্ধন করানো নিয়ে বিপাকে ছিল বার্সা। একদিন আগেও নিশ্চিত ছিল না তাদের মাঠে নামা। তবে স্টুডিওর ২৪.৫ শতাংশ বিক্রি করে ১০০ মিলিয়ন ইউরো আয়ের মাধ্যমে জুলস কুন্দে বাদে বাকিদের নিবন্ধন করাতে সমর্থ হয় তারা।

শেষ মুহূর্তে যে ছয় জনের নিবন্ধন সম্পন্ন হয়েছে, তাদের চার জন জায়গা পান বার্সেলোনার শুরুর একাদশে। তারা হলেন ওসমান দেম্বেলে, রবার্ত লেভানদভস্কি, রাফিনহা ও আন্দ্রেয়াস ক্রিস্টিয়ানসেন। বাকি দুজন অর্থাৎ সার্জি রবার্তো ও ফ্রাঙ্ক কেসিয়ে দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নামেন।

ম্যাচের দ্বাদশ মিনিটেই বল জালে পাঠিয়েছিল বার্সেলোনা। দেম্বেলের থ্রু বল ধরে গোলরক্ষক দিমিত্রিয়েভস্কির ওপর দিয়ে চিপ করে করেন পোলিশ স্ট্রাইকার লেভানদভস্কি। কিন্তু তিনি অফসাইডে থাকার কারণে গোলটি বাতিল হয়ে যায়।

২০তম মিনিটে ফরাসি উইঙ্গার দেম্বেলে ডি-বক্সের প্রান্তে খুঁজে নেন রাফিনহাকে। এই ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের প্রচেষ্টা চলে যায় ক্রসবারের ওপর দিয়ে। পরের মিনিটে দেম্বেলের বাঁ পায়ের কোণাকুণি শট রুখে দেন গোলরক্ষক।

৩৫তম মিনিটে ফের শট আটকে দেম্বেলেকে হতাশ করেন দিমিত্রিয়েভস্কি। পরের মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে স্প্যানিশ মিডফিল্ডার পেদ্রির বাঁকানো শট অল্পের জন্য থাকেনি লক্ষ্যে। কিছুক্ষণ পর রাফিনহার ক্রসে লেভানদভস্কির হেডও খুঁজে পায়নি নিশানা।

আক্রমণের ঝাপটা সামলাতে ব্যস্ত থাকা রায়ো প্রথমার্ধের শেষদিকে এগিয়ে যেতে পারত। সতীর্থের উঁচু করে বাড়ানো বল নিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন আলভারো গার্সিয়া। রোনালদ আরাউহোকে এড়িয়ে তার নেওয়া শট ফিরিয়ে বার্সার জাল অক্ষত রাখেন গোলরক্ষক মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেন।

বিরতির পর প্রথম ভীতি ছড়ায় রায়োই। ৫১তম মিনিটে ডি-বক্সের ভেতরে সার্জিও কামেয়ো সুবর্ণ সুযোগ পেলেও তা নষ্ট করে বসেন। জর্দি আলবাকে ফাঁকি দিয়ে ডাচ তারকা টের স্টেগেনের মাথার ওপর দিয়ে বল জালে পাঠাতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তা বাইরে চলে যায় দূরের পোস্ট ঘেঁষে।

তিন মিনিট পর জটলার মধ্যে লেভানদভস্কি পারেননি দিমিত্রিয়েভস্কিকে বোকা বানাতে। ৬৫তম মিনিটে বদলি স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড আনসু ফাতির শট তার কাছে বাধা পায়। চার মিনিট পর বুসকেতসের দূরপাল্লার প্রচেষ্টা ঝাঁপিয়ে ফিরিয়ে রায়োকে আবারও বাঁচান তিনি।

৮২তম মিনিটে ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ংয়ের পাসে লেভানদভস্কির জোরালো শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। দুই মিনিট পর আরেক বদলি পিয়েরে-এমেরিক অবামেয়াংয়ের শট ব্লক করেন রায়োর ফ্লোরিয়ান লিউন। আলগা বলে লেভানদভস্কির শট চলে যায় পোস্টের বাইরে।

নির্ধারিত সময়ের শেষদিকে কেসিয়ে নিশানা ভেদ করলেও অফসাইডের বাঁশি বাজে। এরপর রাদামেল ফ্যালকাওয়ের মুখে কনুই দিয়ে আঘাত করায় রেফারি দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখান বুসকেতসকে। দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ের পঞ্চম মিনিটে ফ্যালকাও টের স্টেগেনকে ফাঁকি দিলেও অফসাইডের কারণে বিবেচিত হয়নি গোলটি।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..