1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
  3. admin@mkantho.com : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৯:৫১ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
মৌলভীবাজারের ৫টি রেলওয়ে স্টেশন বন্ধ থাকায় এখন ভুতুরে বাড়ি: যাত্রী দুর্ভোগ চরমে: চুরি ও নষ্ট হচ্ছে রেলওয়ের মুল্যবান সম্পদ,নতুন বছরে দৃঢ় হোক সম্প্রীতির বন্ধন, দূর হোক সংকট: প্রধানমন্ত্রী. আজ রোববার উদযাপন হবে বই উৎসব. দুর্গম এলাকায় বিকল্প ব্যবস্থায় নতুন বই পাঠানো হবে: শিক্ষামন্ত্রী, নতুন বছরে নতুন শিক্ষাক্রম চালু হচ্ছে : শিক্ষামন্ত্রী, নতুন আশা নিয়ে মধ্যরাতে বরণ করা হবে ২০২৩ সাল, সিডনিতে আতশবাজির মধ্য দিয়ে ‘নিউ ইয়ার’ বরণ, ইংরেজি নববর্ষ উদযাপনে পুলিশের কড়াকড়ি,আবারও প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা, সম্পাদক হলেন শ্যামল ,নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে কুয়াকাটায় পর্যটকের ঢল

প্রিন্সেস ডায়নার গাড়ি ৭ কোটি ২৯ লাখ টাকায় বিক্রি

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৮ আগস্ট, ২০২২
  • ৫৭ বার পঠিত

অনলাইন ডেস্ক :: প্রিন্সেস ডায়নার ব্যবহৃত একটি গাড়ি বিক্রি হয়েছে ৬ লাখ ৫০ হাজার পাউন্ডে। ব্রিটেনের প্রিন্সেস অব ওয়েলস এই গাড়িটি ৩ বছর ব্যবহার করেছিলেন। শপিং, রেস্তোরাঁয় প্রায়ই তাকে এই গাড়িটিতে দেখা যেত।

আর দিন দুয়েক পরই ডায়নার মৃত্যুদিবস। এর আগে কালো রঙের ফোর্ড এসকর্ট এই গাড়িটি নিলামে বিক্রি করা হলো।
ডববিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রায় ২৫ বছর আগে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান প্রিন্সেস ডায়না। তবে এর আগে ১৯৮৫ সালের আগস্ট থেকে প্রায় তিন বছর কালো রঙের ফোর্ড এসকর্ট আরএস টার্বো মডেলের ওই গাড়িটি ব্যবহার করেছিলেন তিনি। গাড়িটি ডায়নার খুবই প্রিয় ছিল।

শনিবার মধ্য ইংল্যান্ডের সিলভারস্টোন নিলামঘরে প্রিন্সেস অব ওয়েলস ডায়নার কালো রংয়ের ফোর্ড এসকর্ট আরএস টার্বো মডেলের এই গাড়ির নিলাম হয়। অডোমিটার অনুযায়ী, প্রিন্সেসকে নিয়ে গাড়িটি ৪০ হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েছে।

শনিবারের নিলামে এই গাড়িটির দাম ওঠে ৬ লাখ ৫০ হাজার পাউন্ড (৭ লাখ ৬৪ হাজার মার্কিন ডলার)। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ ৭ কোটি ২৯ লাখ টাকারও বেশি।

সংবাদমাধ্যম বলছে, ১৯৮৫ থেকে ১৯৮৮ সাল পর্যন্ত রাজপরিবারের রোলস-রয়েস এবং ডায়ামলার্স না নিয়ে নিজের ফোর্ড এসকর্ট টার্বো এস ১-এ ঘুরে বেড়াতেন প্রিন্সেস ডায়না। প্রিন্সেসের পছন্দ অনুযায়ী ফোর্ড এই গাড়িটি তৈরি করে দিয়েছিল। শপিং, রেস্তোরাঁসহ বিভিন্ন স্থানে যেতে নীল স্ট্রাইপের এই গাড়িটিই ছিল ডায়নার সফরসঙ্গী।

অত্যন্ত পছন্দের গাড়ি হওয়ায় এর সঙ্গে ঘন ঘন ছবি তুলতেন বাকিংহাম প্যালেসের এই বধূ। চেলসির বুটিক শপ এবং কেনসিংটনের বাইরে এই গাড়ির সঙ্গেই তার ছবি তোলা হয়েছিল বলে জানাচ্ছে বিবিসি। কখনো প্রিন্স উইলিয়ামও থাকতেন গাড়িটির পেছনের সিটে।

সংবাদমাধ্যম বলছে, দুবাই, আমেরিকা, ব্রিটেন থেকে ধনকুবেররা এসেছিলেন প্রিন্সেস ডায়নার ব্যবহৃত এই ফোর্ড কিনতে। শেষে তা কিনেছেন ব্রিটেনেরই এক ব্যক্তি। তবে তার নাম প্রকাশ করেনি নিলামকারী সংস্থা। তিনি উত্তর ইংল্যান্ডের বাসিন্দা।

অবশ্য গাড়িটা যে সে অর্থে খুব বিলাসবহুল ছিল, তেমন নয়। তবে প্রিন্স উইলিয়াম-প্রিন্সেস ডায়নার যুগে ব্রিটেনে সবচেয়ে বেশি সংখ্যায় বিক্রি হয়েছিল এই মডেলের গাড়িই। সেই সংখ্যাটাও আবার ৪১ লাখেরও বেশি বলে জানাচ্ছে অটো এক্সপ্রেস ওয়েবসাইট।

আগামী বুধবার প্রিন্সেস ডায়নার ২৫তম মৃত্যুবার্ষিকী। ১৯৯৭ সালের ৩১ আগস্ট প্যারিসের একটি টানেলে রহস্যজনকভাবে গাড়ি দুর্ঘটনায় মারা যান বিশ্বের অন্যতম সেরা এ সুন্দরী। তখন তার বয়স ছিল মাত্র ৩৬ বছর।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..