1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
  3. admin@mkantho.com : Sk Sirajul Islam Siraj : Sk Sirajul Islam Siraj
  • E-paper
  • English Version
  • রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:২৯ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
মৌলভীবাজারের ৫টি রেলওয়ে স্টেশন বন্ধ থাকায় এখন ভুতুরে বাড়ি: যাত্রী দুর্ভোগ চরমে: চুরি ও নষ্ট হচ্ছে রেলওয়ের মুল্যবান সম্পদ,নতুন বছরে দৃঢ় হোক সম্প্রীতির বন্ধন, দূর হোক সংকট: প্রধানমন্ত্রী. আজ রোববার উদযাপন হবে বই উৎসব. দুর্গম এলাকায় বিকল্প ব্যবস্থায় নতুন বই পাঠানো হবে: শিক্ষামন্ত্রী, নতুন বছরে নতুন শিক্ষাক্রম চালু হচ্ছে : শিক্ষামন্ত্রী, নতুন আশা নিয়ে মধ্যরাতে বরণ করা হবে ২০২৩ সাল, সিডনিতে আতশবাজির মধ্য দিয়ে ‘নিউ ইয়ার’ বরণ, ইংরেজি নববর্ষ উদযাপনে পুলিশের কড়াকড়ি,আবারও প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা, সম্পাদক হলেন শ্যামল ,নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে কুয়াকাটায় পর্যটকের ঢল

খুলে নেওয়া হয়েছে ভেন্টিলেটর, কথা বলছেন রুশদি

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৪ আগস্ট, ২০২২
  • ৫৩ বার পঠিত

ডেস্ক রিপোর্ট : বুকারজয়ী ঔপন্যাসিক সালমান রুশদিকে ভেন্টিলেটর (কৃত্রিম উপায়ে শ্বাস-প্রশ্বাস নেওয়ার প্রক্রিয়া) থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে এবং তিনি এখন কথা বলতে পারছেন। স্থানীয় সময় শনিবার তাঁর এজেন্ট অ্যান্ড্রু উইলি এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বলে জানিয়েছ ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি ও মার্কিন গণমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট।

রুশদির সঙ্গে ঘনিষ্ঠ পরিচয় রয়েছে এমন একজন লেখক অতিশ তাসির টুইটার পোস্টে জানিয়েছেন, রুশদির শরীর থেকে ভেন্টিলেটর সাপোর্ট সরিয়ে নেওয়া হলেও তিনি এখনো হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। তবে তিনি কথা বলতে পারছেন।

এদিকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন লেখক রুশদির সাহসের প্রশংসা করেছেন। তিনি এক বিবৃতিতে বলেছেন, রুশদি সব সময়ই সত্য, সাহস ও আদর্শের পক্ষে থেকেছেন। এসব গুণ যেকোনো মুক্ত সমাজ তৈরি করার জন্য অপরিহার্য অংশ। রুশদি এবং রুশদির মতো আরও যাঁরা মত প্রকাশের স্বাধীনতর পক্ষে দাঁড়িয়েছেন, আমরা সব সময় তাঁদের প্রতি সংহতি জানাই। এটাই মার্কিনিদের মূল্যবোধ এবং আমরা আমাদের মূল্যবোধ রক্ষার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করছি।

রুশদির ওপর হামলার খবর শুনে প্রেসিডেন্ট বাইডেন বিস্মিত, হতবাক ও দুঃখিত হয়েছেন বলেও ওই বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র নীতির প্রধান জোসেপ বোরেল শনিবার রাতে এ হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। এক টুইটার পোস্টে বলেছেন, ‘এ ধরনের অপরাধমূলক কর্ম আন্তর্জাতিকভাবে কেউই সমর্থন করে না। এ ধরনের হামলা মানুষের মৌলিক অধিকার ও স্বাধীনতা লঙ্ঘন করে। যেকোনো সহিংস কর্মকাণ্ড প্রত্যাখ্যান করাই উন্নত ও শান্তিপূর্ণ বিশ্বের দিকে যাওয়ার একমাত্র পথ।’

এদিকে ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, রুশদির ওপর সন্দেহভাজন হামলাকারীর বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ আনা হয়েছে। এ হামলার সন্দেহে আটক হাদি মাতারকে (২৪) জামিন না দিয়ে রিমান্ডে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

এর আগে গত শুক্রবার নিউইয়র্কে এক অনুষ্ঠানের মঞ্চে ছুরিকাঘাতের শিকার হন ৭৫ বছর বয়সী বিশ্বখ্যাত লেখক সালমান রুশদি। ঘটনার পরপরই রুশদিকে নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় এক হাসপাতালে।

পরে নিউইয়র্ক স্টেট পুলিশ সংবাদ সম্মেলনে জানায়, নিউজার্সির ফেয়ারভিউ থেকে হাদি মাতার নামে ২৪ বছর বয়সী একজন সন্দেহভাজনকে আটক করা হয়েছে।

ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নি জেসন শ্মিড্ট বলেছেন, রুশদির কথিত আক্রমণকারী ইচ্ছাকৃতভাবে রুশদির ক্ষতি করার জন্য তাঁর ওপর হামলা করেছেন। রুশদি যে অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করছিলেন, সে অনুষ্ঠানে তিনি অগ্রিম পাস নিয়ে এবং ভুয়া আইডি নিয়ে একদিন আগেই পৌঁছেছিলেন। এটি একটি পূর্ব পরিকল্পিত হামলা।

এদিকে পাবলিক ডিফেন্ডার নাথানিয়েল ব্যারন মার্কিন পুলিশ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন। তিনি বলেছেন, অপরাধী হাদি মাতারকে বিচারকের সামনে নিয়ে যেতে পুলিশ অনেক বেশি সময় নিয়েছে।

ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ লেখক সালমান রুশদি গত শুক্রবার স্থানীয় সময় বেলা ১১টার দিকে নিউইয়র্কের শিতৌকা ইনস্টিটিউটে এক সাহিত্য সভায় ছুরিকাঘাতের শিকার হন। ঘটনার পরপরই তাঁকে হেলিকপ্টারে করে পেনসিলভানিয়ার একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

গতকাল শনিবার রুশদির স্বাস্থ্যের অবস্থা জানিয়েছে তাঁর বইয়ের প্রকাশক অ্যান্ড্রু উইলি বলেছিলেন, ‘অস্ত্রোপচারের পর শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কথা বলতে পারেননি রুশদি। তাঁকে ভেন্টিলেটরে রাখা হয়েছে। ছুরিকাঘাতে তাঁর বাহুর স্নায়ু বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। তাঁর একটি চোখ নষ্ট হয়ে যাওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে।’

১৯৪৭ সালের ১৯ জুন ভারতের তৎকালীন বোম্বে (বর্তমান মুম্বাই) শহরে জন্মগ্রহণ করেন সালমান রুশদি। ১৪ বছর বয়সে তিনি যুক্তরাজ্যের চলে যান। কেমব্রিজের কিংস কলেজ থেকে ইতিহাসে স্নাতক (সম্মান) ডিগ্রি অর্জন করেন। পরে দেশটির নাগরিকত্ব অর্জন করেন। একটি বিজ্ঞাপনী সংস্থায় কপিরাইটার হিসেবে চাকরি শুরু করলেও পরবর্তীতে উপন্যাস ও নন-ফিকশন লেখায় মনোযোগ দেন তিনি। ১৯৮১ সালে দ্বিতীয় উপন্যাস ‘মিডনাইটস চিলড্রেন’ লিখে বুকার প্রাইজ জিতেন। তবে, ১৯৮৮ সালে চতুর্থ উপন্যাস ‘স্যাটানিক ভার্সেস’ লিখে ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দেন। বইটিতে ইসলাম ধর্মের নবী হজরত মুহাম্মদকে (সা.) অবমাননা করা হয়েছে এবং নবুয়ত নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করা হয়েছে অভিযোগ এনে পরের বছর ইরানের তৎকালীন সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ রুহুল্লা খোমেনি সালমান রুশদিকে হত্যার ফতোয়া জারি করেন।

প্লিজ আপনি ও অপরকে নিউজটি শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি

এ জাতীয় আরো খবর..