1. newsmkp@gmail.com : Admin : sk Sirajul Islam siraj
  2. info@fxdailyinfo.com : admi2017 :
ব্রেকিং নিউজ :
 করোনা আপডেট :   করোনায় আরও ৪৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৩২২

চা দোকানদারকে পেটালেন জুড়ী ছাত্রলীগ সভাপতি সাবেল!

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৫ জুন, ২০২১
  • ৮৮ বার পঠিত

বডলেখা প্রতিনিধি: প্রবাসী ছেলে ফেসবুকে কলা খাওয়ার ছবি পোষ্ট করার অপরাধে চা দোকানদান পিতাকে কর্মী দিয়ে ধরে নিয়ে পিটিয়েছেন জুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সাহাব উদ্দিন সাবেল! এ ঘটনার বিচার চেয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী স্বপন মিয়া।

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, জুড়ী শিশুপার্ক সংলগ্ন চা দোকানদার স্বপন মিয়ার ছেলে দুবাই প্রবাসী নাইম আহমদ কয়েকদিন পূর্বে দুবাইয়ে বসে কলা খাওয়ার একটি ছবি নিজের ফেসবুকে আইডিতে পোস্ট করেন। এ ছবি দেখে ক্ষিপ্ত হন উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সাহাব উদ্দিন সাবেল। বৃহস্পতিবার রাতে প্রবাসী নাইম মিয়ার পিতা চা দোকানদার স্বপন মিয়াকে সাবেলের নির্দেশে জুড়ী নিউ মার্কেটে ছাত্রলীগের কর্মীরা তুলে নিয়ে যায়। সেখানে ছাত্রলীগ সভাপতি সাহাব উদ্দিন সাবেলসহ তার কর্মীরা তাকে চড়-থাপ্পড় মেরে কান ধরে উঠবস করায়। পরে উপস্থিত সকলের সামনে দোকানদরকে সাবেলের নিকট ক্ষমা চাওয়ায়। ছেলের বয়সী ছাত্রলীগ সভাপতির পায়ে ধরে ক্ষমা চেয়ে পার পান চা দোকানদার স্বপন মিয়া। পরে তিনি জুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নেন এবং থানায় বিচারপ্রার্থী হন। ঘটনার পরদিন শুক্রবার রাতে স্থানীয় দুই আওয়ামী লীগ নেতার মধ্যস্থতায় থানায় সালিশ বৈঠক বসে। সেখানেও ছাত্রলীগ সভাপতি সাবেল তাকে দা নিয়ে ধাওয়া করেন। সালিশ সন্তোষজনক না হওয়ায় সাবেলসহ ঘটনাকারীদের বিরুদ্ধে তিনি থানায় মামলা করেছেন।

ভুক্তভোগী চা দোকানি স্বপন মিয়া জানান, তার ছেলে বিদেশে থাকে। সেখানে তার কপিল তাকে কলা দিয়েছে। সে কলা খেয়ে কলার ছবি ফেসবুকে দিয়েছে। এসব কিছুই জানি না। বৃহস্পতিবার রাতে হুমায়ূন, কিবরিয়া, রুহানসহ কয়েকজন জোর করে মোটর সাইকেলে তুলে নিউ মার্কেটের তিন তলায় নিয়ে যায়। সেখানে আমাকে মারধর করে সাবেলের পায়ে ধরে ক্ষমা চাওয়ায়। একসময় তার (সাবেলের) বাবা কলা বিক্রি করতেন। এই কারণে নাকি আমার ছেলে কলার ছবি ফেসবুকে ছেড়ে তাকে অপমান করেছে।

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাহাব উদ্দিন সাবেল জানান, চা দোকানদার স্বপন মিয়ার সাথে ছোটভাইদের একটু ভুলবুঝাবুঝি হয়েছে। পরিবেশমন্ত্রী মহোদয়, দলীয় নেতৃবৃন্দ ও প্রশাসন অবগত হয়ে বিষয়টি নিষ্পত্তির চেষ্টা চালাচ্ছেন।

থানার ওসি সঞ্জয় চক্রবর্তী জানান, ভুক্তভোগী স্বপন মিয়া থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন। তদন্ত সাপেক্ষে এব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..